ভিডিওটি ইতিমধ্যে ৬৭ লাখ বার দেখা হয়েছে।
ভিডিওটির নিচে এক ইন্টারনেট ব্যবহারকারী মন্তব্য করেছেন, ‘যে পরিবারটি শিশুর মতো করে তাঁর প্রতি এত খেয়াল রাখছে, তাঁকে ভ্রমণের জন্য উদ্বুদ্ধ করছে, তাদের জন্য শুভকামনা ও ভালোবাসা। আপনাদের সুস্থতা কামনা করছি।’

আরেক ব্যবহারকারী তাঁর দাদির অভিজ্ঞতার কথা উল্লেখ করে লিখেছেন, ‘আমার দাদিও ৮৮ বছর বয়সে প্রথমবারের মতো উড়োজাহাজে ভ্রমণ করেছেন। আমরা যখন তাঁর অনুভূতি জানতে চেয়েছিলাম, তখন বলেছিলেন পানিতে চলা জাহাজের মতো লেগেছে। বিনয়ী আচরণ ও সৌন্দর্যের জন্য এয়ার হোস্টেসদেরও প্রশংসা করেছিলেন তিনি।’

অপর এক ব্যবহারকারী লেখেন, ‘হে ঈশ্বর, এ প্রথম আমি বড়ি মাম্মি শব্দটি ব্যবহার হতে দেখলাম। আমরা আমাদের দাদিজিকে বড়ি মাম্মি বলে ডাকতাম। আমার তাঁর কথা মনে পড়ে গেল। ভিডিওটি শেয়ার করায় ধন্যবাদ। বড়ি মাম্মির প্রতি ঈশ্বর সহায় হোক।’

আরও এক ব্যবহারকারী মন্তব্য করেছেন, ‘আমার নানির বোনের কথা মনে পড়ে গেল। তিনি প্রথমবারের মতো উড়োজাহাজে চড়ে আমার বিয়ের অনুষ্ঠানে এসেছিলেন। তিনি মানসিক প্রতিবন্ধী ছিলেন। জীবনভর তিনি আমাদের কাছে দ্বিতীয় নানি হয়ে ছিলেন।

কয়েক মাস আগে তিনি মারা গেছেন। তবে তাঁর আগে তিনি উড়োজাহাজে চড়তে পারায় আমি খুশি। উড়োজাহাজে চড়ার খুব আগ্রহ ছিল তাঁর। উড়োজাহাজে কেমন লাগে, তা নিয়ে তিনি সব সময় আমাদের কাছে জানতে চাইতেন। মা-বাবা, দাদা-দাদি, নানা-নানিদের ভালোবাসুন। এর চেয়ে বেশি আর কেউ আপনাদের ভালোবাসবে না।’