২১ জুলাই ৭৯ বছর বয়সী জো বাইডেন করোনায় আক্রান্ত হন। তখন তিনি শরীরে করোনার মৃদু উপসর্গ থাকার কথা উল্লেখ করেছিলেন। চিকিৎসা শেষে গত সপ্তাহের মঙ্গলবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত চার দিনে বাইডেন চার দফায় করোনার নমুনা পরীক্ষা করিয়েছেন। প্রতিবারই করোনা নেগেটিভ এসেছে।

শনিবার বাইডেন বলেছেন, তিনি করোনার কোনো উপসর্গ বোধ করছেন না। তবে আশপাশে থাকা মানুষদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তার কথা ভেবে আইসোলেশনে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

বাইডেনের স্বাস্থ্যের অবস্থা সম্পর্কে তাঁর চিকিৎসক কেভিন ও’কনর বলেন, প্রেসিডেন্টের নতুন করে চিকিৎসা শুরুর প্রয়োজন নেই। তবে তাঁকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে।

চিকিৎসক কেভিন নিশ্চিত করেছেন, বাইডেন করোনা চিকিৎসার জন্য প্যাক্সলোভিড নিয়েছিলেন। গত বছরের ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন জরুরি পরিস্থিতিতে ১২ বছরের বেশি বয়সীদের করোনা চিকিৎসায় এ ওষুধ ব্যবহারের অনুমোদন দেয়। বলা হয়, এ ওষুধ রোগীদের হাসপাতালে ভর্তির হার কমায়।

২১ জুলাই ৭৯ বছর বয়সী জো বাইডেন করোনায় আক্রান্ত হন। তখন তিনি শরীরে করোনার মৃদু উপসর্গ থাকার কথা উল্লেখ করেছিলেন। চিকিৎসা শেষে গত সপ্তাহের মঙ্গলবার থেকে শুক্রবার পর্যন্ত চার দিনে বাইডেন চার দফায় করোনার নমুনা পরীক্ষা করিয়েছেন। প্রতিবারই করোনা নেগেটিভ এসেছে।

শনিবার বাইডেন বলেছেন, তিনি করোনার কোনো উপসর্গ বোধ করছেন না। তবে আশপাশে থাকা মানুষদের স্বাস্থ্যগত নিরাপত্তার কথা ভেবে আইসোলেশনে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

বাইডেনের স্বাস্থ্যের অবস্থা সম্পর্কে তাঁর চিকিৎসক কেভিন ও’কনর বলেন, প্রেসিডেন্টের নতুন করে চিকিৎসা শুরুর প্রয়োজন নেই। তবে তাঁকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হচ্ছে।

চিকিৎসক কেভিন নিশ্চিত করেছেন, বাইডেন করোনা চিকিৎসার জন্য প্যাক্সলোভিড নিয়েছিলেন। গত বছরের ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন জরুরি পরিস্থিতিতে ১২ বছরের বেশি বয়সীদের করোনা চিকিৎসায় এ ওষুধ ব্যবহারের অনুমোদন দেয়। বলা হয়, এ ওষুধ রোগীদের হাসপাতালে ভর্তির হার কমায়।

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন