default-image

সেনেগাল উপকূলে নৌকাডুবিতে ইউরোপে অভিবাসনপ্রত্যাশী অন্তত ১৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ডুবে যাওয়ার আগে নৌকাটিতে আগুন ধরে গিয়েছিল। এটি এ বছরের নৌডুবিতে সবচেয়ে বেশি মৃত্যুর ঘটনা। জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থা গতকাল বৃহস্পতিবার এ তথ্য জানায়।

আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা (আইওএম) জানায়, গত শনিবার সেনেগালের রাজধানী ডাকারের ১০০ কিলোমিটার দক্ষিণে অ্যাম্বুর শহর ছেড়ে যাওয়ার কয়েক ঘণ্টার মধ্যে নৌকাটিতে আগুন ধরে যায়। নৌকায় এ সময় ২০০ জনের মতো আরোহী ছিল।

দেশটির গণমাধ্যমে এ ঘটনার একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়েছে। এতে দেখা যায়, সাগরে জেলেদের একটি নৌকা কালো ধোঁয়ার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। আর প্রাণপণে সাঁতরে নৌকাটির দিকে এগোনোর চেষ্টা করছে ডুবে যাওয়ার নৌকার লোকজন।

আইওএম এক বিবৃতিতে জানায়, সেনেগাল ও স্পেনের নৌবাহিনীর কর্মী ও জেলেরা প্রায় ৬০ জনকে উদ্ধার করেছে। কিন্তু অন্তত ১৪০ জন ডুবে গেছে।

বিজ্ঞাপন

পশ্চিম আফ্রিকা থেকে এবার স্পেনের ক্যানারি আইল্যান্ডে পৌঁছেছে প্রায় ১১ হাজার অভিবাসী, যা গত বছরের তুলনায় চারগুণ। অবৈধ অভিবাসীরা এর আগে ইউরোপের দক্ষিণাঞ্চলে বেশি যেত লিবিয়া বা আলজেরিয়া থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে। তবে এই দুই পথে নজরদারি বাড়ানোর কারণে নতুন পথ হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে পশ্চিম আফ্রিকার পথটি।

ভয়ংকর এই সাগরপথ পাড়ি দিয়ে ক্যানারি আইল্যান্ডে যাওয়ার পথটি বেশি ব্যবহৃত পথের একটি। কিন্তু এ বছরের মাঝামাঝি স্পেন এ পথে নজরদারি জোরালো করলে অবৈধ অভিবাসীদের জন্য পথটি কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। কিন্তু দারিদ্র্য ও যুদ্ধাবস্থা থেকে বাঁচতে অভিবাসনপ্রত্যাশীরা ১৪০০ কিলোমিটার দীর্ঘ এ ঝুঁকিপূর্ণ সমুদ্রপথকে বেছে নিচ্ছে।

মন্তব্য পড়ুন 0