জঙ্গিগোষ্ঠীগুলোর এক দশকের বিদ্রোহের বিরুদ্ধে লড়াই করে আসছে মালির সেনাবাহিনী
ফাইল ছবি: রয়টার্স

মালিতে এক হামলায় ৪২ সেনা নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ২২ জন। তেসিত শহরের কাছে গত রোববার হামলার এ ঘটনা ঘটে বলে গতকাল বুধবার জানিয়েছে দেশটির সরকার। হামলার জন্য ইসলামিক স্টেটের (আইএস) অনুগত একটি সংগঠনকে দায়ী করছে দেশটির সরকার। খবর রয়টার্সের।

সাম্প্রতিক বছরগুলোয় এটি মালির সেনাবাহিনীর ওপর অন্যতম প্রাণঘাতী হামলা। জঙ্গিগোষ্ঠীগুলোর এক দশকের বিদ্রোহের বিরুদ্ধে লড়াই করে আসছে দেশটির সেনাবাহিনী। পশ্চিম আফ্রিকার সাহেল অঞ্চলজুড়ে এ জঙ্গি তৎপরতা বিস্তৃত।

এক বিবৃতিতে সরকার বলেছে, ‘সশস্ত্র সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলোর একটি জটিল ও সমন্বিত হামলার জোরালো জবাব দিয়েছে মালি সেনাবাহিনীর তেসিত ইউনিটগুলো। ইসলামিক স্টেট গ্রেটার সাহারা (আইএসজিএস) এ হামলা চালিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

হামলায় ড্রোন, বিস্ফোরক, গাড়িবোমা ও গোলা ব্যবহার করা হয়েছে।’ সেনারা কয়েক ঘণ্টার ভয়াবহ এ লড়াইয়ে ৩৭ যোদ্ধাকে হত্যা করেছেন বলে এতে বলা হয়েছে।
এর আগে সেনাবাহিনী জানিয়েছিল, হামলায় ১৭ সেনা নিহত হয়েছেন। ৯ জন নিখোঁজ।

আরও পড়ুন

এক দশক পর মালি থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা ফ্রান্সের

গণতান্ত্রিক সরকারকে উৎখাত করে ২০২০ সাল থেকে মালি শাসন করছে সামরিক সরকার। সহিংসতার লাগাম টানতে না পারার ব্যর্থতার হতাশাও সামরিক বাহিনীর ক্ষমতা দখলের একটি কারণ ছিল। কিন্তু এরপরও সচরাচর হামলার ঘটনা ঘটেই চলেছে।

জুলাইয়ের শেষ দিকে মালির মূল সামরিক ঘাঁটিতে হামলা চালানোর দাবি করেছিল আল-কায়েদার অনুগত একটি সন্ত্রাসী গোষ্ঠী।

আরও পড়ুন

মালিতে সামরিক চৌকিতে হামলা, নিহত ৫৪