default-image

আফগানিস্তান থেকে মিশন প্রত্যাহার শুরু করে দিয়েছে সামরিক জোট ন্যাটো। সংস্থাটির এক কর্মকর্তা গতকাল বৃহস্পতিবার বার্তা সংস্থা এএফপিকে এ তথ্য জানান।

সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন। তাঁর এই ঘোষণার প্রেক্ষাপটে আফগানিস্তান থেকে ন্যাটো তার মিশন প্রত্যাহার শুরু করল।

বিজ্ঞাপন


জো বাইডেনের ঘোষণা অনুযায়ী, ১ মে থেকে আফগানিস্তান থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার শুরু হবে। আর আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের আগেই আফগানিস্তান থেকে সব মার্কিন সেনা যুক্তরাষ্ট্রে ফিরে আসবে।

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে ভয়াবহ জঙ্গি হামলা হয়। সেই হামলার জের ধরেই আফগানিস্তানে সামরিক অভিযানে যায় যুক্তরাষ্ট্র। যুক্তরাষ্ট্রের এই অভিযানে সঙ্গী হয় ন্যাটো। আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র-সমর্থিত ন্যাটো মিশনে প্রায় সাড়ে ৯ হাজার সদস্য রয়েছেন।

ন্যাটোর এক কর্মকর্তা গতকাল বলেন, ১ মে নাগাদ মিশন প্রত্যাহার শুরুর বিষয়ে জোটের সদস্যরা চলতি এপ্রিল মাসের মাঝামাঝি সিদ্ধান্ত নেয়। মিশন প্রত্যাহারের সেই কাজটি ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে।

ন্যাটোর ওই কর্মকর্তা জানান, মিশন প্রত্যাহারের কাজটি পরিকল্পিত, সমন্বিত ও সুশৃঙ্খল উপায়ে সম্পন্ন করা হবে। মিশন প্রত্যাহার শেষ করতে কয়েক মাস লাগবে বলে জানান তিনি।

তবে ন্যাটের ওই কর্মকর্তা এ বিষয়ে বিস্তারিত কোনো তথ্য দেননি। এমনকি মিশন প্রত্যাহারের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো সময়সীমার কথাও জানাননি তিনি।

বিজ্ঞাপন

ন্যাটোর ওই কর্মকর্তা বলেন, আফগান মিশন প্রত্যাহারের প্রক্রিয়ায় জোটের লোকজনের নিরাপত্তার বিষয়টি সর্বোচ্চ গুরুত্ব পাবে। বর্তমানে মিশনে থাকা ন্যাটোর লোকজনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে তাঁরা প্রয়োজনীয় সব ধরনের ব্যবস্থা নিচ্ছেন।

মিশন প্রত্যাহারের সময় ন্যাটোর লোকজনের ওপর যদি তালেবান হামলা চালায়, তবে তাদের সমুচিত জবাব দেওয়া হবে বলে জানান ওই কর্মকর্তা।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন