বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রক্তপাতহীন অভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে ১ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখলে নেয় জান্তা। আটক করা হয় স্টেট কাউন্সেলর অং সান সু চি ও প্রেসিডেন্ট উইন মিন্টকে। অভ্যুত্থানের কয়েক দিন পর থেকেই জান্তাবিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে ওঠে পুরো মিয়ানমার। বিক্ষোভকারীদের দাবি সুষ্পষ্ট, সেনাশাসন প্রত্যাহার এবং সু চিসহ সব রাজবন্দীর মুক্তি।

দুই মাসের বেশি সময় ধরে চলা বিক্ষোভে দেশটিতে সেনা-পুলিশের গুলিতে এখন পর্যন্ত শিশুসহ সাত শতাধিক মানুষের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে অধিকার সংগঠন অ্যাসিস্ট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিক্যাল প্রিজনার্স (এএপিপি)। আটক হয়েছেন সাংবাদিক, শিল্পীসহ তিন সহস্রাধিক বিক্ষোভকারী।

নিজ দেশের মানুষের ওপর গুলি চালিয়ে হত্যার কারণে বিশ্বজুড়ে তীব্র সমালোচিত হয়েছেন জান্তা প্রধান মিন অং হ্লাইং। যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ পশ্চিমা দেশগুলোর পাশাপাশি আসিয়ান সদস্যরাও জান্তার প্রতি রক্তপাত বন্ধের আহ্বান জানিয়েছে। মিয়ানমারের প্রতিবেশী দেশগুলো আলোচনার মধ্য দিয়ে সমস্যা সমাধানের আহ্বান জানালেও জান্তা সরকার তেমন আগ্রহ দেখাচ্ছে না।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন