পার্লামেন্টে বিলুপ্তির পর প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট সরে দাঁড়াবেন। আর তাঁর স্থলে আসবেন বর্তমান পররাষ্ট্রমন্ত্রী মধ্যপন্থী নেতা ইয়ার লাপিদ। তিনি অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। ইসরায়েলে দুই বছর ধরে চলমান রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার মধ্যে গত বছরের জুনে এই জোট গঠন করেছিলেন বেনেট ও লাপিদ।

বেনেট-লাপিদ জোট ক্ষমতায় বসায় দীর্ঘ ১২ বছর পর প্রধানমন্ত্রীর গদি ছাড়তে হয় নেতানিয়াহুকে। বর্তমানে ইসরায়েলের বিরোধীদলীয় নেতা নেতানিয়াহু বেনেট সরকারের সিদ্ধান্তে খুশি হয়েছেন। তিনি জোর প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এ সরকারকে ইসরায়েলের ইতিহাসে সবচেয়ে খারাপ সরকার বলে মন্তব্য করেছেন তিনি।

সংখ্যালঘু সরকারকে হটিয়ে ষষ্ঠবারের মতো সরকার গঠনের কথাও বলেছেন তিনি। জনমত জরিপগুলোও তাঁর পক্ষেই কথা বলছে। গত মঙ্গলবার প্রকাশিত চারটি জরিপে নেতানিয়াহুর ডানপন্থী লিকুদ পার্টি ও তাদের সম্ভাব্য জোটসঙ্গী জাতীয়তাবাদী ও ডানপন্থী দলগুলো নির্বাচনে এগিয়ে রয়েছে। তবে নেসেটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে প্রয়োজনীয় ১২০ আসনের চেয়ে তাদের আসন কম রয়েছে। তবে বর্তমান জোট সরকারে থাকা ডানপন্থী ও মধ্যপন্থী দলগুলো নেতানিয়াহুর ফিরে আসা ঠেকাতে ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছে।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন