গত বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো করোনা রোগী শনাক্তের খবর সামনে আনে উত্তর কোরিয়া সরকার। রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে অমিক্রনে আক্রান্ত ওই রোগী শনাক্ত হয়। এরই মধ্যে করোনার বিস্তার রোধে দেশজুড়ে লকডাউনের আদেশ দিয়েছেন কিম।

উত্তর কোরিয়ার কোনো নাগরিক করোনায় আক্রান্ত হননি বলে দুই বছর ধরে দাবি করে আসছিল সরকার। বিশ্বে করোনা মহামারি শুরুর পর থেকেই কঠোর বিধিনিষেধ জারি করেছিল দেশটি। এর জেরে তীব্র আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হয় পিয়ংইয়ংকে।

উত্তর কোরিয়ার সরকারি গণমাধ্যম কেসিএনএর দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, শুধু শুক্রবারে দেশটিতে ১ লাখ ৭৪ হাজার ৪৪০ জনের জ্বর ছিল। এদিন পুরোপুরি সুস্থ হয়েছেন ৮১ হাজার ৪৩০ জন। আর মৃত্যু হয়েছে ২১ জনের।

এদিকে গত এপ্রিলের শেষভাগ থেকে মে মাসের ১৩ তারিখ পর্যন্ত মোট ৫ লাখ ২৪ হাজার ৪৪০ জন জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে কেসিএনএ। এই সময়ে মৃত্যু হয়েছে ২৭ জনের। তবে জ্বরে আক্রান্ত ও মৃত ব্যক্তিরা করোনা পজিটিভ ছিলেন কি না, তা জানানো হয়নি।

করোনার বর্তমান পরিস্থিতিকে ‘মহাবিপর্যয়’ উল্লেখ করে কিম জং–উন বলেন, ‘আমাদের দেশ প্রতিষ্ঠার পর মারাত্মক এই মহামারি সবচেয়ে বড় সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে।’ এর জন্য তিনি আমলাতান্ত্রিক জটিলতা ও চিকিৎসাব্যবস্থাকে দায়ী করেছেন।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন