করোনার টিকা নিয়েছেন অন্তরীণ সু চি

মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি।
ফাইল ছবি: এএফপি

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে টিকা নিয়েছেন মিয়ানমারের ক্ষমতাচ্যুত নেত্রী অং সান সু চি (৭৬)। করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে তাঁর ব্যক্তিগত কর্মীদেরও। গত ১ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে সেনা অভ্যুত্থানের পর থেকেই অন্তরীণ আছেন সু চি।
আজ মঙ্গলবার এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সু চির টিকা নেওয়ার বিষয়টি জানিয়েছেন তাঁর আইনজীবী মিন মিন সোয়ে। তিনি বলেন, সু চি ও তাঁর ব্যক্তিগত কর্মীদের সবাইকে করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। তিনি জানান, জান্তা সরকারের উদ্যোগে তাঁদের টিকা দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন

তবে এ বিষয়ে আর কিছু জানাননি সু চির আইনজীবী। এমনকি সু চিকে কবে, কোন দেশের উদ্ভাবিত করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে, সেটাও জানানো হয়নি। ধারণা করা হচ্ছে, আটক হওয়ার আগেই করোনার টিকার প্রথম ডোজ নিয়েছিলেন সুচি। এবার নিলেন টিকার দ্বিতীয় ডোজ। নিরাপত্তা রক্ষী, রাঁধুনিসহ সু চির সঙ্গে প্রায় ১০ জন কর্মী রয়েছেন।

মিন সোয়ে আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতি নিয়ে তিনি (সু চি) বেশ উদ্বিগ্ন। সংক্রমণ এড়াতে জনগণকে সম্ভব হলে টিকা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সু চি।

আরও পড়ুন

গত নভেম্বরে অনুষ্ঠিত মিয়ানমারের জাতীয় নির্বাচনে জয়ী হয় অং সান সু চির রাজনৈতিক দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি)। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ওই নির্বাচনকে ‘অবাধ ও নিরপেক্ষ’ বললেও জনতার রায় মানেনি দেশটির সেনাবাহিনী। চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি রক্তপাতহীন অভ্যুত্থানে রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে নেয় জান্তা। আটক হন এনএলডির নেত্রী সু চিসহ মিয়ানমারের প্রভাবশালী গণতন্ত্রকামী নেতারা। তখন থেকে অন্তরীণ আছেন সু চি। ঘুষ নেওয়া, তথ্য গোপন আইন ভঙ্গসহ একাধিক অভিযোগে সু চির বিচার চলছে।