বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ঐতিহ্যবাহী পোশাক বিক্রেতা আবদুল হামিদ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, ‘এখন আমাদের ব্যবসার ধরন বদলে যাচ্ছে। লোকজন এখন আর জিনস এবং টি-শার্ট কিনতে যাচ্ছে না, তারা ঐতিহ্যবাহী পোশাক এবং কটি কিনছে। মানুষের হাতে কেনার জন্য পর্যাপ্ত অর্থ না থাকলেও আগের তুলনায় বেশি ক্রেতা আসছে দোকানে।’

অন্যদিকে, জিনস, স্যুট এবং নজরকাড়া পশ্চিমা পোশাক বিক্রেতারা বলছেন, তাঁদের ব্যবসা খুবই মন্দা যাচ্ছে। সৈয়দ নোমান সাদাত নামের এক ব্যবসায়ী বলেন, তাঁর দোকানটি নারীদের চকচকে পোশাকের জন্য সুপরিচিত, কিন্তু বর্তমানে কেউ দোকানে ঢোকার সাহস দেখাচ্ছে না।

নোমান সাদাত আরও বলেন, ‘এখন পর্যন্ত তালেবান ইসলামিক আমিরাতে এই ধরনের ব্যবসা করার অনুমতি দিয়েছে। পরিস্থিতি ভালো হলে আমরা ব্যবসা চালিয়ে যেতে পারব। আর না হলে ব্যবসা বন্ধ করে নিজেদের পেট চালাতে অন্য কোনো কাজ করতে হবে।’

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন