বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এ বিরোধের জেরে কাবুলের প্রেসিডেন্ট প্রাসাদে গোলাগুলির ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। ওই সময় মোল্লা বারাদারের নিহত হওয়া গুজব ছড়িয়ে পড়ে। ওইসময় এক ভিডিও সাক্ষাৎকারে হাজির হয়ে বারাদার তাঁর মৃত্যুর গুজব উড়িয়ে দেন। তিনি বলেন, ‘না, এটা সত্য নয়। আমি ঠিক আছি। ভালো আছি।’

সাক্ষাৎকারে বারাদার আরও বলেন, ‘গণমাধ্যমের খবরে বলা হচ্ছে যে তালেবানের ভেতরে বিরোধ আছে। কিন্তু আমাদের মধ্যে কোনো বিরোধ নেই। এ-সংক্রান্ত খবর সত্য নয়। এ নিয়ে চিন্তার কিছু নেই।’

তবে প্রাসাদে গোলাগুলির পর মোল্লা বারাদার কাবুল ছেড়ে কান্দাহারে চলে যান। এখন কাবুলে ফিরলেও হাক্কানি নেটওয়ার্কের নেতা সিরাজুদ্দিন হাক্কানির নেতৃত্বে থাকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে নিরাপত্তা নিতে চাইছেন না তিনি। তালেবান সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সিরাজুদ্দিন হাক্কানির নাম যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসী তালিকায় রয়েছে। আর মোল্লা বারাদারের নাম ২০২১ সালে টাইম ম্যাগাজিনের ১০০ প্রভাবশালীর তালিকায় রয়েছে।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন