বিজ্ঞাপন

২০০৪ সালের এথেন্স অলিম্পিকে পুরুষদের টেবিল টেনিসের এককে স্বর্ণ জিতেছিলেন রিউ সেউং-মিন। পরে তিনি দেশের জাতীয় অলিম্পিক কমিটির কর্মকাণ্ডে যুক্ত হন এবং সেই সূত্রে আইওসি-এর সদস্য নির্বাচিত হন। সেই সূত্রে অলিম্পিকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ছাড়াও এথলেটিকসের বিভিন্ন ইভেন্টে তার অংশ নেওয়ার কথা ছিল।

জাপান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, যারা পজেটিভ শনাক্ত হচ্ছেন তাদের একটি স্থানে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে, রিউকেও ওই স্থানে রাখা হয়েছে। তবে, তিনি সেখান থেকে কবে নাগাদ যেতে পারবেন সে ব্যাপারে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত জানানো হবে। এদিকে সঠিকভাবে নিয়ম মেনে চলার প্রক্রিয়ায় পজেটিভ শনাক্ত হওয়ায় আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি স্বস্তি প্রকাশ করেছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে রিউ বলেছেন, জাপানে আসার আগে কোভিড-১৯ পরীক্ষায় তিনি দুইবার নেগেটিভ ফল পেয়েছেন। ইতিমধ্যে করোনার দুটি ডোজ টিকাও নিয়েছেন তিনি। এমন প্রেক্ষাপটে অলিম্পিক আয়োজক কমিটি ও স্বাগতিক দেশ জাপানের জন্য বিড়ম্বনার কারণ হয়ে দেখায় তিনি ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন।

এদিকে, প্রশিক্ষণ শিবিরে থাকা দক্ষিণ আফ্রিকা ফুটবল দলের দুজন খেলোয়াড়ের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এর আগে টোকিও পৌঁছানোর পর দলটির ভিডিও বিশ্লেষক করোনা পজেটিভ হওয়ায় তাকে আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় দলের সব সদস্যের করোনাভাইরাস পরীক্ষার ফলাফল না পাওয়া পর্যন্ত কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

দক্ষিণ আফ্রিকা জাতীয় ফুটবল দল এ ঘটনাকে সঙ্কট হিসেবে দেখছে। নতুন করে কোনও খেলোয়াড়ের শরীরে ভাইরাস শনাক্ত না হলেও গ্রুপ পর্যায়ের খেলায় এর প্রভাব পরবে। এ কারণে আগামী বৃহস্পতিবার প্রথম ম্যাচে জাপানের বিরুদ্ধে নিয়মিত সেই দুই খেলোয়াড় ছাড়াই খেলতে হবে তাদের।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন