পশ্চিম তীরে ইহুদি বসতি স্থাপনের বিরোধিতা করে আসছে ফিলিস্তিনিরা
পশ্চিম তীরে ইহুদি বসতি স্থাপনের বিরোধিতা করে আসছে ফিলিস্তিনিরাছবি: রয়টার্স

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতা ছাড়ার আগেই পূর্ব জেরুজালেমে আরও ইহুদি বসতি নির্মাণ করতে চায় ইসরায়েল। ইসরায়েলের সুশীল সমাজের সংগঠন ইর আমিন উদ্বেগ প্রকাশ করে রোববার এই কথা জানিয়েছে।

বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে রোববার এ কথা বলা হয়। কয়েক দশক ধরে  ইসরায়েল অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেম ও দখলকৃত পশ্চিম তীরে ইহুদি বসতি সম্প্রসারণের বিরোধিতা করে আসছিল যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু ট্রাম্প প্রশাসন সেই নীতি থেকে সরে আসে।

তবে নবনির্বাচিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ঘোষণা দিয়েছেন, তাঁর প্রশাসন আন্তর্জাতিক আইন মেনে ইসরায়েলের অবৈধ ইহুদি বসতি সম্প্রসারণের বিরোধিতা করবে। অনেক দেশের দৃষ্টিতেই অবৈধ বসতি সম্প্রসারণই ইসরায়েল–ফিলিস্তন শান্তির পথে অন্যতম বাধা।

ইহুদি বসতি স্থাপনে ইসরায়েলের সর্বশেষ পদক্ষেপ হলো, তাদের ভূমি কর্তৃপক্ষ পূর্ব জেরুজালেমের জনবসতিহীন এলাকা গিভাত হেমাতোসে বসতি স্থাপনের জন্য দরপত্র আহ্বান করেছে। এই বসতি তারা স্থাপন করতে যাচ্ছে ফিলিস্তিনের বেইত সাফাফার লাগোয়া এলাকায়।

বিজ্ঞাপন

গত ফেব্রুয়ারিতে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু ঘোষণা দেন, গিভাত হেমাতোস এলাকায় তিন হাজার বাড়ি নির্মাণ করা হবে। এর মধ্যে দুই হাজার হবে ইহুদিদের জন্য। আর এক হাজার হবে বেইত সাফাফার আরব অধিবাসীর জন্য।

নেতানিয়াহুর এই ঘোষণার অংশ হিসেবে গত সপ্তাহে ইসরায়েলের ভূমি কর্তৃপক্ষ গিভাত হেমাতোসে ১ হাজার ২০০টির বেশি আবাসন নির্মাণের জন্য দরপত্র আহ্বান করে।

এই সম্প্রসারণের ব্যাপারে রোববার ইসরায়েলি সুশীল সংগঠন ইর আমিম উদ্বেগ প্রকাশ করে বিবৃতি দেয়। সংগঠনটি বলছে, ওয়াশিংটনে ক্ষমতা পালাবদলের বাকি থাকা দুই মাস হবে গুরুত্বপূর্ণ সময়। তাদের বিশ্বাস, এ সময়ের মধ্যেই ইসরায়েলের সরকার এই সম্প্রসারণ নিশ্চিত করার চেষ্টা করবে। কারণ, জো বাইডেন প্রশাসন ইসরায়েলের এই পদক্ষেপের বিরোধিতা করতে পারে, সেই আশঙ্কা তেল আবিবের রয়েছে।

মন্তব্য পড়ুন 0