বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বার্তা সংস্থা রয়টার্স বলছে, আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ তালেবানের হাতে যাওয়ার পর বর্তমান পরিস্থিতির আলোকে আদালতের কাছে এ অনুরোধ জানানো হয়।

এর আগে কৌঁসুলিরা মার্কিন সেনা ও আফগান সেনাদের হাতে সম্ভাব্য অপরাধ নিয়ে তদন্তের কথা বলেছিলেন। তবে এখন কৌঁসুলি করিম খান বলেছেন, তাঁদের হাতে যথেষ্ট সম্পদ না থাকায় ওই বিষয়ের ওপর গুরুত্ব কমিয়ে দিয়ে আদালতের এখতিয়ারে থাকা অপরাধের মাত্রা এবং প্রকৃতির ওপর গুরুত্বারোপ করবেন।

এ বিষয়টি নিয়ে আফগানিস্তানের মানবাধিকারকর্মী হোরিয়া মোসাদিক বলেন, এই ঘোষণা আফগান, মার্কিন ও ন্যাটো সেনাদের হাতে নির্যাতনের শিকার হাজারো মানুষের অপমান।

আইসিসি ইতিমধ্যে ১৫ বছর আফগানিস্তানের যুদ্ধাপরাধ অভিযোগ নিয়ে পর্যবেক্ষণ করে গত বছর পূর্ণ তদন্ত শুরু করে। কিন্তু আফগান সরকার ওই তদন্ত স্থগিত করে দেয়।

তবে করিম খান বলেন, ‘আফগানিস্তানের সরকার পতন এবং তালেবানের ক্ষমতায় আসার বিষয়টি পরিস্থিতি পুরোপুরি বদলে দিয়েছে। বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করে আমি সিদ্ধান্তে এসেছি যে আফগানিস্তানের ভেতরে আর প্রকৃত ও কার্যকর অভ্যন্তরীণ তদন্তের সুযোগ নেই।’

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন