বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত ফেব্রুয়ারিতে মিয়ানমারে সামরিক অভ্যুত্থান হয়। অভ্যুত্থানের মাধ্যমে অং সাং সু চির গণতান্ত্রিক সরকার উৎখাত করে ক্ষমতা দখল করে দেশটির সেনাবাহিনী।

অভ্যুত্থানের পরপরই দেশটিতে সেনাশাসনবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়। এই বিক্ষোভ থামাতে রক্তক্ষয়ী দমনপীড়ন চালিয়ে আসছে দেশটির জান্তা সরকার।

জান্তার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে দেশটির স্থানীয় পর্যায়ে পিপলস ডিফেন্স ফোর্স গঠন করেছে বিরোধীরা। সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে তারা সেনাবাহিনীর মালিকানাধীন বেশ কিছু টেলিযোগাযোগ টাওয়ার ধ্বংস করেছে।

বিশেষ করে সেনাবাহিনী ও স্থানীয় প্রতিরোধ যোদ্ধাদের মধ্যে সংঘাত-সংঘর্ষপূর্ণ এলাকাগুলোতে ইন্টারনেট ও ডেটা ‘ব্ল্যাকআউট’ হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে।

জান্তার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভাষ্য, সংশ্লিষ্ট এলাকায় ইন্টারনেট ও ডেটা ‘ব্ল্যাকআউট’-এর জন্য সেনা কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়।

জান্তার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে দাবি করেছে, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কারণে সাম্প্রতিক সময়ে ইন্টারনেট সংযোগ বিঘ্নিত হয়েছে। কারণ, তারা টেলিযোগাযোগের টাওয়ার ধ্বংস করছে।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন