বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র বলছেন, ‘শুক্রবার হাপ্রুসোতে সৈন্যরা ‘সন্দেহজনক উপায়ে’ চলা সাতটি গাড়ি থামানোর চেষ্টা করলে লড়াই শুরু হয়।’ সেভ দ্য চিলড্রেন বলছে, তাঁদের নিহত দুই কর্মী সম্প্রতি বাবা হয়েছেন। তাঁরা শিশুদের জন্য শিক্ষা নিয়ে কাজ করতেন। দুজনই ছুটি উপলক্ষে বাড়ি ফিরছিলেন। এক টুইট বার্তায় দাতব্য সংস্থাটি দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা ও জবাবদিহির জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদকে পদক্ষেপ নেওয়া আহ্বান জানিয়েছে।

হামলার পর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্থনি ব্লিঙ্কেন বলেছেন, সেনাবাহিনীকে জবাবদিহি করতে হবে। তিনি মিয়ানমারের সামরিক বাহিনীর কাছে অস্ত্র বিক্রি নিষিদ্ধ করারও আহ্বান জানান।

গত ফেব্রুয়ারির প্রথম দিনে এক অভ্যুত্থানের মাধ্যমে মিয়ানমারের সামরিক বাহিনী রাষ্ট্রক্ষমতা দখলের পর থেকে দেশজুড়ে জান্তাবিরোধী গণবিক্ষোভ শুরু হয়। অভ্যুত্থানের পর জান্তার হাতে আটক ব্যক্তিদের মধ্যে নির্বাচিত নেত্রী অং সান সু চি এবং তাঁর দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) সদস্যরা রয়েছেন। দেশজুড়ে জান্তাবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হওয়ার পর নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে শিশু ও নারীসহ দেশটির শত শত মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন।

মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন