বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ছবিগুলোর নিচে ক্যাপশনও দিয়েছেন খয়রুল। রাইস কুকারকে বিয়ের করার কারণ জানাতে তিনি লিখেছেন, ‘আমি রাইস কুকারকে বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। কারণ, এটা দেখতে সুন্দর, রান্নাও ভালো করে।’ খয়রুল আনামের ওই পোস্ট মুর্হূতেই ছড়িয়ে পড়ে। লাইক–কমেন্ট পড়ে হাজার হাজার।

তবে বিচিত্র সেই বিয়ে টেকেনি বেশি দিন। চার দিন পরই বিবাহবিচ্ছেদ হয়েছে। খয়রুল আনাম রাইস কুকারকে ‘ডিভোর্স’ দেওয়ার কারণ হিসেবে বলেছেন, এটা শুধু রান্নাই করতে পারে। বিবাহবিচ্ছেদের কথা যথারীতি ফেসবুকেই জানিয়েছেন ওই ইন্দোনেশীয়।

ইন্দোনেশিয়ার সংবাদমাধ্যমগুলোর খবরে বলা হয়েছে, এটা কোনো আসল বিয়ে নয়। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিনোদন দিতে রাইস কুকারকে বিয়ে ও পরে বিচ্ছেদের ঘটনা সাজিয়েছেন খয়রুল আনাম। খবরে আরও বলা হয়েছে, খয়রুল আনাম ইন্দোনেশিয়ার এক পরিচিত মুখ। তিনি তাঁর অনুসারীদের বিনোদন দিতে অনলাইনে নানা ধরনের অদ্ভুত কাণ্ড ঘটান।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন