সিয়ানজুর প্রশাসনের প্রধান হেরমান সুহেরমান মেট্রো টিভিকে বলেন, ‘এখন পর্যন্ত শুধু এই হাসপাতাল থেকে (সিয়ানজুর শহরের হাসপাতাল) আমি যে তথ্য পেয়েছি, প্রায় ২০ জন মারা গেছেন। কমপক্ষে ৩০০ জনকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তাঁদের অধিকাংশই ভবনের ধ্বংসস্তূপে আটকা পড়ে শরীরে আঘাত পেয়েছেন।’

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, রিখটার স্কেলে ভূমিকম্পটির মাত্রা ছিল ৫ দশমিক ৬। ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম জাভা প্রদেশে এটি আঘাত হানে। সেখানকার সিয়ানজুর শহর ছিল ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল।

প্রশান্ত মহাসাগরের ‘রিং অব ফায়ার’ অবস্থানে ইন্দোনেশিয়া থাকায় সেখানে প্রায়ই ভূমিকম্প ও আগ্নেয়গিরির সক্রিয়তা দেখা যায়।