দক্ষিণ কোরিয়ার সেনাবাহিনী বলেছে, জবাবে সিউল ৮০টি উড়োজাহাজ মোতায়েন করেছে। এর মধ্যে এফ-৩৫–এ যুদ্ধবিমানও আছে। পাশাপাশি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে প্রায় ২৪০টি বিমানের মহড়া অব্যাহত আছে।

গত মাসে উত্তর কোরিয়ার যুদ্ধবিমান একই ধরনের মহড়া চালিয়েছিল। জবাবে দক্ষিণ কোরিয়া তখনো যুদ্ধবিমান মোতায়েন করেছিল।

রাতভর উত্তর কোরিয়া ৮০টির বেশি গোলাবারুদ সাগরে নিক্ষেপ করার পর আজ এ মহড়া চালাল।

গতকাল বৃহস্পতিবার তারা সাগরে বেশ কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্রও ছুড়েছে। ধারণা করা হচ্ছে এগুলোর মধ্যে একটি আন্তর্মহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র (আইসিবিএম) ছিল, যেটির পরীক্ষা ব্যর্থ হয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার এসব ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পর যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া চলমান বিমান মহড়া জোরদার করে। আর তাতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে পিয়ংইয়ং।