শ্রীলঙ্কান নিরাপত্তা বাহিনীর সূত্রে জানা গেছে, গোতাবায়া রাজাপক্ষে অল্প কিছু সময়ের জন্য সিঙ্গাপুর থাকবেন। এরপর তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের উদ্দেশে যাত্রা করবেন।

শ্রীলঙ্কার সংবাদমাধ্যম ডেইলি মিররের খবরে বলা হয়, সিঙ্গাপুরের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, গোতাবায়া ব্যক্তিগত সফরে সিঙ্গাপুরে এসেছেন। তিনি কোনো ধরনের আশ্রয় চাননি এবং তাঁকে কোনো ধরনের আশ্রয় দেওয়াও হয়নি।

সিঙ্গাপুর সাধারণত কোনো ধরনের আশ্রয়ের আবেদন মঞ্জুর করে না।

নজিরবিহীন অর্থনৈতিক সংকট ও গণ-আন্দোলনের মুখে গত মঙ্গলবার রাতে একটি সামরিক বিমানে দেশ ছেড়ে মালদ্বীপে পালিয়ে যান গোতাবায়া। তাঁর সঙ্গী হন স্ত্রী ও দুই নিরাপত্তারক্ষী।

কিন্তু গোতাবায়া মালদ্বীপে গেলে সে দেশে বসবাসরত শ্রীলঙ্কার বাসিন্দারা বিক্ষোভ দেখান। তাঁকে মালদ্বীপে আশ্রয় না দেওয়ার দাবি ওঠে।

default-image

মালদ্বীপের সাধারণ লোকজনও দেশটির সরকারের প্রতি তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন। গোতাবায়াকে আশ্রয় দেওয়ায় মালদ্বীপের রাজনৈতিক দলগুলো দেশটির সরকারের কঠোর সমালোচনা করে।

গতকাল বুধবার রাতে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইটে গোতাবায়াদের মালদ্বীপ থেকে সিঙ্গাপুরে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু নিরাপত্তাসংক্রান্ত উদ্বেগ থেকে তাঁরা সিঙ্গাপুর এয়ারলাইনসের ফ্লাইটে ওঠা থেকে বিরত থাকেন। তাঁরা ব্যক্তিগত উড়োজাহাজে করে সিঙ্গাপুরে যাওয়ার পরিকল্পনা করছেন বলে খবর বের হয়। শেষ পর্যন্ত তাঁরা সৌদি এয়ারলাইনসের ফ্লাইটে মালদ্বীপ ছাড়েন।

এশিয়া থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন