বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয় এর আগে গত জুলাই মাসে দেশটির হেনান প্রদেশে বন্যায় তিন শতাধিক প্রাণহানির ঘটনা ঘটে। মঙ্গলবার জরুরি ব্যবস্থাপনা বিভাগের কর্মকর্তা ওয়াং কুইরু এক সংবাদ সম্মলেন জানান, শানঝি প্রদেশে অন্তত ৬০টি কয়লাখনি রয়েছে, যার মধ্যে চীনের শীর্ষ কয়লা উৎপাদন খনিও রয়েছে, যা বন্যার কারণে সাময়িকভাবে বন্ধ রাখা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে শুধু চারটি খনির উৎপাদন কার্যক্রম স্বাভাবিক হয়েছে।

ওয়াং বলেন, প্রচণ্ড খারাপ আবহাওয়ার কারণে সেখানকার প্রায় ১৯ হাজার ভবন ধংস হয়েছে, এ ছাড়া আরও অন্তত ১৮ হাজার ভবন ‘ভয়াবহ ক্ষতিগ্রস্ত’ হয়েছে। তিনি আরও বলেন, প্রাকৃতিক দুর্যোগে ১৫ জন নিহত হয়েছে, নিখোঁজ রয়েছে ৩ জন।

তিনি বলেন, ভয়াবহ বন্যায় শানঝি প্রদেশে ১৭ লাখের বেশি অধিবাসী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে সেখানকার ১ লাখ ২০ হাজার অধিবাসীকে।

শানঝি ইভিনিং নিউজে প্রকাশিত একটি ছবিতে দেখা গেছে, বন্যার পানি রাস্তায় উঠে যাওয়ায় যানবাহনগুলো আটকে পড়েছে। কোমরসমান পানির মধ্য থেকে স্কুল শিক্ষার্থীদের ট্রাফিক পুলিশের সদস্যদের পিঠে করে সরিয়ে নিতে দেখা গেছে ছবিতে।

চীন থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন