হন্ডুরাসের প্রেসিডেন্ট সিওমারা কাস্ত্রো
ছবি: রয়টার্স

চীনের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করবে মধ্য আমেরিকার দেশ হন্ডুরাস। দেশটির প্রেসিডেন্ট সিওমারা কাস্ত্রো (Xiomara Castro) গতকাল মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছেন। হন্ডুরাস এই কাজ করলে তাইওয়ানের সঙ্গে দেশটির দীর্ঘদিনের আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক ছিন্ন হবে।

সিওমারা কাস্ত্রো টুইটারে লিখেছেন, তিনি তাঁর দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এডুয়ার্ডো রেইনাকে গণপ্রজাতন্ত্রী চীনের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক শুরুর জন্য নির্দেশনা দিয়েছেন।

সম্প্রতি সিওমারা কাস্ত্রোর সরকার ঘোষণা দেয়, তারা একটি জলবিদ্যুৎ বাঁধ নির্মাণের জন্য চীনের সঙ্গে আলোচনা করছে। এর কয়েক সপ্তাহের মাথায় চীনের সঙ্গে হন্ডুরাস কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করতে যাচ্ছে বলে ঘোষণা এল।

বেইজিংয়ের ‘এক চীন’ নীতি অনুযায়ী, কোনো দেশ চীন ও তাইওয়ান উভয়ের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক সম্পর্ক বজায় রাখতে পারে না।

হন্ডুরাসসহ বিশ্বের মাত্র ১৪টি দেশ আনুষ্ঠানিকভাবে তাইওয়ানকে স্বীকৃতি দেয়।

হন্ডুরাস সরকার ইতিমধ্যে আনুষ্ঠানিকভাবে তাইপের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করেছে কি না, তা তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করেনি।

তবে হন্ডুরাসের ঘোষণায় আজ বুধবার তাইওয়ানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

আরও পড়ুন

গণতন্ত্র-স্বাধীনতার প্রতি চীনকে শ্রদ্ধা জানাতে বলল তাইওয়ান

তাইওয়ান নিজেকে স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে দেখে। তাইওয়ানের নিজস্ব সংবিধান ও গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত নেতা রয়েছে। তাইওয়ানের বেশির ভাগ বাসিন্দা নিজেদের তাইওয়ানি হিসেবে পরিচয় দেয়। অপর দিকে তাইওয়ানকে নিজেদের ভূখণ্ডের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে মনে করে চীন। তাই তারা তাইওয়ানের নিয়ন্ত্রণ নিতে চায়।