টুইটারে গত শনিবার ভিডিওটি শেয়ার করেছেন ভারতের সরকারি কর্মকর্তা সুপ্রিয় সাহু। শিরোনামে লিখেছেন, ‘মা ও শাবক হাতির জন্য পিয়ানোর সুর’। ভিডিওতে তিনি পল বার্টন নামে থাইল্যান্ডের এক ব্যক্তির নাম উল্লেখ করেছেন। তিনিই ওই পিয়ানো বাজাচ্ছিলেন। 

জানা গেছে, পল বার্টনের জন্ম যুক্তরাজ্যে। ২৬ বছর আগে তিনি থাইল্যান্ডে পাড়ি জমান। সেখানে তিনি অন্ধ ও প্রতিবন্ধী হাতিদের জন্য পিয়ানো বাজান। পল বার্টন বলেন, ‘হাতিরা যদি আনন্দ পায়, তাহলে সেগুলোর জন্য পিয়ানো বাজানো সার্থক। বিশেষ করে হাতিগুলো যদি কষ্টের মধ্যে থাকে।’

ভিডিওটি অবশ্য বেশ আগে ধারণ করা। সম্প্রতি নতুন করে সেটি আবার ইন্টারনেটে ছড়িয়েছে। তবে পুরোনো হোক না কেন, ভিডিওটি দেখে বেশ মজা পেয়েছেন সবাই। হাতি দুটির জন্য ভালোবাসা জানিয়ে মন্তব্য করতেও ভোলেননি অনেকে। 

এমনই একজন ভিডিওতে মন্তব্য করেছেন, ‘শ্রোতারা বেশ প্রাণোচ্ছল। তাদের জন্য পিয়ানো বাজানো আসলেই সার্থক হয়েছে।’ দু-একজন অবশ্য ভিডিওটির সমালোচনা করেছেন। তাঁদের মন্তব্য, হাতি দুটিকে প্রশিক্ষণ দিয়ে সেখানে রাখা হয়েছে।