এই নামে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তাঁর ব্যাপক পরিচিতি রয়েছে। বিশেষ এই নাম এসেছে অ্যান্থনির শরীরভরা ট্যাটুর কারণে। মাথা থেকে পা অবধি নানান ট্যাটুতে ভরা অ্যান্থনির শরীর। এমনকি জিহ্বা ও চোখেও ট্যাটু রয়েছে তাঁর।

ট্যাটু ভীষণ পছন্দ করেন অ্যান্থনি। তাই নিজের শরীরকেই ক্যানভাস বানিয়েছেন তিনি। কিন্তু অ্যান্থনির এমন বিচিত্র কাজ পছন্দ করেননি মানুষ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অনেকেই তাঁর শরীরজুড়ে থাকা ট্যাটুর সমালোচনা করেছেন।

এ বিষয়ে অ্যান্থনি সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘ট্যাটু আমার বেশ পছন্দের জিনিস। তবে এ জন্য অনেকেই আমাকে পাগল ভাবেন। যদিও আমি পুরোপুরি স্বাভাবিক একজন মানুষ।’

হতাশা প্রকাশ করে ৩৪ বছর বয়সী অ্যান্থনি বলেন, ‘অনেকেই আমাকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করেন। এমনকি শরীরজুড়ে ট্যাটু থাকার কারণে আমি চাকরিও পাচ্ছি না। প্রতিদিন আমাকে এটা নিয়ে লড়াই চালিয়ে যেতে হচ্ছে। আমি একজন স্বাভাবিক মানুষ হিসেবে চিহ্নিত হতে চাই।’

বিশ্ব থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন