বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা ন্যায়সংগত না বলে বিবিসিকে জানান কোরতুনভ। তিনি বলেন, এ ঘটনায় তাঁর রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সহকর্মীরা হতবাক ও বিধ্বস্ত।
কোরতুনভ রাশিয়ার ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স কাউন্সিলের (আরআইএসি) মহাপরিচালক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ইউক্রেনে হামলা চালানোর পরিকল্পনা ক্রেমলিন থেকে করা হয়েছে বলে বিশ্বাস করেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরুর পর আজ শনিবার রাজধানী কিয়েভে প্রবেশ করেছে রুশ সেনারা। শহরটির রাস্তায় রাস্তায় লড়াই শুরু হয়েছে। ভোর থেকেই কিয়েভে একাধিক বিস্ফোরণ ও উভয় পক্ষের সেনাদের মধ্যে সংঘর্ষের খবর পাওয়া যাচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে স্থানীয় বাসিন্দাদের ঘরের ভেতরে থাকার নির্দেশ দিয়েছে ইউক্রেনের সরকার।

কোনো প্রতিরোধ ছাড়াই ইউক্রেনের মেলিতোপোল শহর রাশিয়ার সেনারা দখলে নিয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে। কিয়েভের একটি সামরিক ঘাঁটিতেও হামলা চালিয়েছিল রুশ সেনাবাহিনী। তবে ওই হামলা প্রতিহত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে ইউক্রেন। এ ছাড়া রাশিয়ার সাড়ে তিন হাজার সেনাকে হত্যার দাবি করেছে ইউক্রেন সেনাবাহিনী।

এদিকে ইউক্রেন থেকে দেশটির প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কিকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়ার প্রস্তাব দিয়েছিল যুক্তরাষ্ট্র সরকার। তবে জেলেনস্কি সে প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন। আজ নিজের করা একটি ভিডিও টুইটারে পোস্ট করে জেলেনস্কি বলেছেন, তিনি কিয়েভে আছেন। সবাই মিলে দেশকে রক্ষা করবেন।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন