বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কপ ২৬–এর মূল সম্মেলনস্থলে হুইলচেয়ার ব্যবহার উপযোগী ব্যবস্থা না থাকায় স্থানীয় সময় গতকাল সোমবার গ্লাসগোয় সম্মেলনে যোগ দিতে পারেননি কারিন। এ জন্য ক্ষোভ জানান তিনি। ৪৪ বছর বয়সী কারিন এলহারার ইসরায়েলের জাতীয় অবকাঠামো, জ্বালানি ও পানিসম্পদমন্ত্রী। তিনি পেশির দুর্বলতার ভুগছেন। এ জন্য তাঁকে হুইলচেয়ারে চলাফেরা করতে হয়।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি আজ সোমবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কারিনের সঙ্গে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন বরিস জনসন। আজ ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে পূর্বনির্ধারিত একটি বৈঠকে বসেছিলেন বরিস জনসন। ওই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন কারিনও। এ সময় বরিস জনসন কারিনের কাছে ‘অনাকাঙ্ক্ষিত ভুলের’ জন্য ক্ষমা চান।

বরিস জনসনের সঙ্গে বৈঠকের পর এক বিবৃতিতে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনেত এই অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনায় দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়ায় যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। বিবৃতিতে তিনি বলেন, এ ঘটনা ভবিষ্যতের জন্য শিক্ষা হয়ে থাকবে।
গ্লাসগোয় গত ৩১ অক্টোবর থেকে কপ ২৬ সম্মেলন শুরু হয়েছে। চলবে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত। রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধানদের পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন দেশ, সংস্থা, সংগঠনের প্রতিনিধিরা এ সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আয়োজনের দ্বিতীয় দিন সোমবার সম্মেলনে যোগ দিতে যান ইসরায়েলি মন্ত্রী কারিন। কিন্তু সম্মেলনে যোগ দিতে না পেরে টানা দুই ঘণ্টা অপেক্ষা করার পর তাঁকে সম্মেলনস্থল থেকে ৫০ মাইল দূরের হোটেলে ফিরে আসতে হয়।

এ সময় কারিন অভিযোগ করেন, হুইলচেয়ার ব্যবহারকারীদের মূল সম্মেলনস্থলে যাওয়ার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হয়নি। শুধু হেঁটে কিংবা সাটল পরিবহনে চেপে সম্মেলনস্থলে যাওয়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। সে কারণে তিনি মূল সম্মেলনস্থলে যেতে পারেননি।

টুইটে কারিন বলেন, ‘দুঃখজনক বিষয় হলো জাতিসংঘ বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের জন্য সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিতের পক্ষে কথা বললেও নিজেদের অনুষ্ঠানে সে ধরনের সুবিধা নিশ্চিত করার বিষয়টি মাথায় রাখেনি। আশা করছি, ভবিষ্যতে যেকোনো সম্মেলনে জাতিসংঘ এই বিষয়টি মাথায় রাখবে।’

সংবাদমাধ্যমে এ ঘটনা প্রকাশের পর কারিনের কাছে ক্ষমা চান ইসরায়েলে নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রদূত নিল উইগান। এক টুইটে তিনি লিখেন, কারিন সম্মেলনে যোগ দিতে পারেননি শুনে তিনি বিব্রত বোধ করছেন। তাঁরা এমন একটি কপ সম্মেলন চান, যা সবার জন্য উপযোগী ও অভ্যর্থনামূলক হবে।

এ ঘটনায় বরিস জনসনের আগে যুক্তরাজ্য সরকারের পক্ষে দেশটির পরিবেশমন্ত্রী জর্জ ইওসটিস ইসরায়েলি মন্ত্রী কারিনের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। তিনি বলেন, ‘কারিনের সঙ্গে এমন ঘটনা ঘটনায় আমি গভীরভাবে অনুতপ্ত।’

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন