default-image

করোনার দ্বিতীয় প্রজন্মের টিকা তৈরির লক্ষ্যে কাজ করছেন বিজ্ঞানীরা। তাঁরা বলছেন, করোনার নতুন ধরনের বিরুদ্ধে কার্যকর টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল খুব শিগগির শুরু হতে পারে। গতকাল রোববার দ্য গার্ডিয়ান এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানায়।

খবরে বলা হয়, যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন গবেষণাগারে (ল্যাব) করোনার দ্বিতীয় প্রজন্মের টিকা তৈরির জন্য জোরকদমে কাজ চলছে। এসব টিকা তৈরির লক্ষ্য হলো করোনার বিরুদ্ধে সুরক্ষা আরও জোরদার করা।

বিজ্ঞানীরা এখন টিকার এমন সংস্করণ তৈরি করতে যাচ্ছেন, যা করোনার নানান ধরনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ সুরক্ষা দিতে সক্ষম হবে। এক ব্যক্তির থেকে অন্য ব্যক্তির মধ্যে করোনার সংক্রমণ রোধ করবে—এমন টিকা নিয়েও কাজ চলছে।

বিজ্ঞাপন

এ ছাড়া করোনার টিকার আরও কিছু প্রকল্প নিয়ে কাজ চলছে। তার মধ্যে এমন টিকা রয়েছে, যার একটি ডোজই করোনার ভিন্ন ভিন্ন ধরন মোকাবিলা করতে সক্ষম হবে।

বর্তমানে যে টিকাগুলো রয়েছে, তা এক ব্যক্তির থেকে অন্য ব্যক্তির মধ্যে করোনা সংক্রমিত হওয়া ঠেকাতে কার্যকর কি না, সে বিষয়টি অজানা।

যুক্তরাজ্যের নটিংহাম ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক ও ভাইরোলজিস্ট জনাথন বল বলেন, সম্প্রতি শনাক্ত করোনার নতুন ধরনগুলো মূল ভাইরাসের চেয়ে মারাত্মক রোগের কারণ হয়ে ওঠার কোনো ইঙ্গিত নেই। তা সত্ত্বেও কিছু নতুন ধরন অধিকতর সংক্রামক হতে পারে বলে প্রমাণ রয়েছে।

জনাথন বলের মতে, দ্বিতীয় প্রজন্মের টিকা আরও অধিক প্রতিরোধ ক্ষমতা দিতে সক্ষম হবে বলে তাঁর আশা।

যুক্তরাজ্যে দ্বিতীয় প্রজন্মের টিকার একটি প্রকল্প অনেক দূর অগ্রসর হয়েছে বলে খবরে জানানো হয়। এ প্রসঙ্গে জনাথন বল বলেন, এই টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল খুব শিগগির শুরু হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন