ইউক্রেনের পার্লামেন্ট রাদার সদস্যদের বরাত দিয়ে স্পিকার ভিয়াচেসলাভ ভলোদিন বলেন, শুক্রবারই প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কি কিয়েভ ত্যাগ করেন। তিনি (জেলেনস্কি) সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে যেসব ভিডিও প্রকাশ করছেন, তা আগে ধারণ করা।

বিবিসির খবরে বলা হয়, শুক্রবার থেকে গুঞ্জন শুরু হয়, জেলেনস্কি রাশিয়ার সেনাদের কাছে আত্মসমর্পণ করেছেন। তবে শনিবার টুইটারে একটি ভিডিওতে তিনি এমন কথা উড়িয়ে দেন। টুইটারে পোস্ট করা তাঁর এক ভিডিওতে দেখা যায়, কিয়েভের রাস্তায় সাদামাটা পোশাকে হাঁটছেন তিনি।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টের বাসভবন গরোদেৎস্কি হাউসের সামনের ওই ভিডিওতে জেলেনস্কিকে বলতে শোনা যায়, ‘অনলাইনে অনেক ভুয়া তথ্য ছড়িয়ে পড়েছে, আমি নাকি সেনাবাহিনীকে অস্ত্রসমর্পণের নির্দেশ দিয়েছি ও নিরাপদ আশ্রয় নিয়েছি। কিন্তু আমি এখানেই (কিয়েভ) আছি। আমরা অস্ত্র ছাড়ব না। দেশকে রক্ষা করব।’

এদিকে রাশিয়ার সঙ্গে অস্ত্রবিরতি নিয়ে আলোচনা শুরু করতে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট প্রস্তুত আছেন বলে শনিবার জানিয়েছেন জেলেনস্কির মুখপাত্র সের্গি নিকিফোরভ। ফেসবুকে এক পোস্টে নিকিফোরভ বলেন, ‘আমরা আলোচনায় অস্বীকৃতি জানিয়েছি বলে যে দাবি করা হয়েছে, তা ঠিক নয়। অস্ত্রবিরতি ও শান্তি প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে আলোচনায় ইউক্রেন আগেও প্রস্তুত ছিল, এখনো আছে।’

নিকিফোরভের বিবৃতি প্রকাশের কিছুক্ষণ আগে রুশ পররাষ্ট্রমন্ত্রীর মুখপাত্র মারিয়া জাখারভ দাবি করেছিলেন, শুক্রবার কিয়েভ আলোচনায় অংশ নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন