বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ওই ব্যক্তি ব্রিজিত মাখোঁর ভাতিজা পরিচয় দিয়ে রেসের ফর্মুলা ওয়ান টিকিট পাওয়ার চেষ্টা করেন। পরে অবশ্য তিনি ধরা পড়ে যান।

বিচারক বলেন, ‘আদালত ঘটনাগুলোর গুরুত্ব অনুধাবন করে শাস্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।’ ওই ব্যক্তি মানসিক অসুস্থতার কারণে চিকিৎসা নিতে চান বলেও জানিয়েছেন আদালত। মনস্তাত্ত্বিক একটি প্রতিবেদনে অবশ্য তাঁর মিথ্যা বলাকে মানসিক অসুস্থতা হিসেবে বিবেচনা করা হয়েছে। তবে পুরোপুরি মানসিক রোগী হিসেবেও তাঁকে বর্ণনা করা হয়নি।

সাজাপ্রাপ্ত ওই ব্যক্তি আদালতকে বলেন, ‘মর্যাদা, সম্মান ও বিশেষ সুবিধা’ আকর্ষণ করত তাঁকে। তবে অর্থ বা কারও ক্ষতি করতে তিনি ব্রিজিত মাখোঁর আত্মীয়ের পরিচয় দেননি।

ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে এর আগেও এ ধরনের ১৭টি অভিযোগ এসেছে।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন