বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইউক্রেনে রাশিয়ার হামলা শুরুর পর যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্রদের একের পর নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়েছে মস্কো। দেশটি থেকে জ্বালানি তেল ও গ্যাস আমদানি বন্ধ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে এখনো রাশিয়ার জ্বালানি আমদানি করছে ইউরোপের দেশগুলো।

পুতিনের নতুন ঘোষণা অনুযায়ী, গ্যাসের বিদেশি ক্রেতাদের প্রথমে রাশিয়ার গ্যাজপ্রম ব্যাংকে একটি বিশেষ হিসাব খুলতে হবে। তাঁরা ওই হিসাবে বিদেশি মুদ্রা জমা দেবেন। গ্যাজপ্রম ব্যাংক ওই মুদ্রা রুবলে রূপান্তরের পর তা গ্যাসের মূল্য পরিশোধে ব্যবহার করা যাবে। পুতিন বলেন, কেউ যদি অর্থ পরিশোধ না করে, তবে তাকে খেলাপি হিসেবে বিবেচনা করা হবে এবং পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

পুতিন বলেন, ‘কেউ বিনা মূল্যে আমাদের কাছে কিছু বিক্রি করে না। আর আমরাও দাতব্য কিছু করতে যাচ্ছি না।’

এদিকে পুতিনের এমন ঘোষণার পর জার্মানি ও ফ্রান্স রাশিয়ার গ্যাস আনা বন্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলে জানিয়েছেন ফরাসি অর্থমন্ত্রী ব্রুনো লা মেয়ার। জার্মানির রাজধানী বার্লিনে দেশটির অর্থমন্ত্রী রবার্ট হাবেকের সঙ্গে বৈঠক শেষে তিনি বলেন, ‘কাল এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে পারে যে রাশিয়ার গ্যাস আর আসছে না।’

ব্রুনো লা মেয়ার বলেন, ‘এমন পরিস্থিতি হবে কি না, তা আমাদের ওপরই নির্ভর করে। আর আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি।’

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন