বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

লন্ডন মেট্রোপলিটন পুলিশ জানায়, গ্রেপ্তার ৩৮ বছর বয়সী লিউশামের বাসিন্দা ওই ব্যক্তি বর্তমানে তাদের হেফাজতে আছে। এদিকে সিসিটিভির ফুটেজ থেকে পাওয়া ছবিতে সন্দেহভাজন এক ব্যক্তিকে সাবিনা নেছা হত্যায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ খুঁজছে। এ ছাড়া ওই ব্যক্তির ব্যবহৃত একটি রুপালি রঙের গাড়িও খুঁজছে তারা।

সাবিনাকে যেদিন হত্যা করা হয়, সেদিন সন্ধ্যায় পেগলার স্কয়ারে ওই ব্যক্তিকে হাঁটতে দেখা যায়। সিসিটিভির ফুটেজ থেকে নেওয়া ছবিতে একই এলাকায় রুপালি রঙের গাড়িটি দেখা গেছে।

লন্ডন মেট্রোপলিটন বিশেষায়িত অপরাধ কমান্ডের গোয়েন্দাপ্রধান পরিদর্শক নেইল জন বলেন, ‘বৃহত্তর লিউশাম, গ্রিনউইচ ও কিডব্রুকের সবাইকে অত্যন্ত মনোযোগের সঙ্গে এই ছবির ব্যক্তিকে খতিয়ে দেখার অনুরোধ করা হয়েছে। হতে পারে, আপনি এই ব্যক্তিকে চেনেন বা সম্প্রতি দেখে থাকতে পারেন।’

যুক্তরাজ্যের বেডফোর্ডশায়ারের স্যান্ডি এলাকায় বেড়ে উঠেছেন সাবিনা নেছা। ইউনিভার্সিটি অব বেডফোর্ডশায়ারে শিক্ষা নিয়ে পোস্টগ্র্যাজুয়েট করেছেন তিনি। তিনি দক্ষিণ-পূর্ব লন্ডনের লিউশামের একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ছিলেন।

সাবিনা হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় লন্ডনের মেয়র সাদিক খান বলেছেন, ব্রিটেনের রাজধানীতে নারীর প্রতি ‘সহিংসতার মহামারি’ সন্ত্রাসবাদ দমনের সমান গুরুত্ব দিয়ে মোকাবিলা করতে হবে।

সম্প্রতি যুক্তরাজ্যে এ ধরনের হত্যাকাণ্ড অনেক বেড়েছে। স্কটিশ সরকার ও যুক্তরাজ্যের জাতীয় পরিসংখ্যান দপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, ২০১৯ সালের মার্চ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত যুক্তরাজ্যে দুই শতাধিক নারী হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়েছেন।
আরও পড়ুন

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন