বিজ্ঞাপন

সরকারের সমালোচক এই সাংবাদিককে গ্রেপ্তারের জন্য গ্রিস থেকে লিথুয়ানিয়াগামী একটি ফ্লাইট ঘুরিয়ে নেয় বেলারুশ কর্তৃপক্ষ। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, বোমা থাকার কথা বলে ফ্লাইটটি ঘুরিয়ে নেয় বেলারুশ কর্তৃপক্ষ। এরপর বেলারুশের নেক্সটা মিডিয়া নেটওয়ার্ক জানায়, ওই ফ্লাইটে তাদের সাবেক সম্পাদক রোমান প্রোতাসেভিচ ছিলেন এবং তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

বেলারুশের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম বলেছে, বোমা-আতঙ্কে বিমানটি বেলারুশের রাজধানী মিনস্কে ঘুরিয়ে নেওয়া হয়। যদিও ওই ফ্লাইটে কোনো বিস্ফোরক পাওয়া যায়নি।
বেলারুশের এই সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে নতুন নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দেয় ইইউ। ২৭ দেশের এই জোটের পক্ষ থেকে আরও বলা হয়েছে, তাদের কোনো এয়ারলাইনসও বেলারুশের আকাশসীমা ব্যবহার করবে না। এ ছাড়া অধিকতর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপের ঘোষণা দিয়েছে ইইউ।

এদিকে সাংবাদিক রোমান প্রোতাসেভিচের গ্রেপ্তারের ঘটনায় ক্ষোভ জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলো। বেলারুশের বিরুদ্ধে ‘রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসের’ অভিযোগ তুলে শাস্তি দাবি করেছে তারা। ইউরোপজুড়ে রাজনৈতিক নেতারা এরই মধ্যে এ ঘটনায় ইইউ ও ন্যাটোর হস্তক্ষেপ চেয়েছে।

যুক্তরাজ্যের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডমিনিক রাব বেলারুশ সরকারকে সতর্ক করে বলেছেন, ‘নজিরবিহীন’ এই পদক্ষেপের ‘গুরুতর পরিণতি’ হবে।

১৯৯৪ সাল থেকে বেলারুশ শাসন করে আসা ৬৬ বছর বয়সী আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কো গত বছর আগস্টের ওই নির্বাচনের পর থেকে ভিন্নমতাবলম্বী ও সমালোচকদের ওপর ব্যাপক দমন-পীড়ন চালাচ্ছেন। অনেক বিরোধী নেতা গ্রেপ্তার হয়েছেন। এ ছাড়া অনেকেই বিদেশে পাড়ি জমিয়েছেন।

ওই নির্বাচন এবং তার পরবর্তী সময়ে বেলারুশের বিরোধীদের পক্ষে বড় ভূমিকা রেখেছিল নেক্সটা মিডিয়া। টেলিগ্রাম চ্যানেলের পাশাপাশি টুইটার ও ইউটিউবে তাদের খবর প্রকাশিত হয়।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন