default-image

সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চল ইদলিব শহরে বিদ্রোহী যোদ্ধাদের একটি প্রশিক্ষণ শিবিরে রুশ বিমান হামলায় ৭৮ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৯০ জনেরও বেশি। স্থানীয় সময় সোমবার এই হামলার ঘটনা ঘটে।

সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটসের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি এ কথা জানিয়েছে। নিহতরা তুরস্কের মদদপুষ্ট ফেলাক আল শামের সদস্য বলে জানানো হয়েছে। সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের পক্ষ নিয়ে রাশিয়া সেখানে বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

আট মাস আগে যুদ্ধবিরতি স্বাক্ষরিত হওয়ার পর এটাই সবচেয়ে বড় হামলার ঘটনা বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে উল্লেখ করা হয়েছে।

কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরার খবরে বলা হয়, ফেলাক আল শামের মুখপাত্র ইউসেফ হামমাউদ বলেন, জাবাল আল দেউলা এলাকার একটি প্রশিক্ষণ শিবিরে ওই হামলায় শিবিরের নেতাও নিহত হয়েছেন। এই এলাকাতেই তারা সবচেয়ে শক্তিশালী ছিলেন।

এ দিকে সিরিয়ার বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে থাকা ইদলিব শহরের সিভিল ডিফেন্স পরিচালক মুস্তফা আল-হাজ ইউসেফ আল জাজিরাকে জানান, তারা এখন পর্যন্ত ৩৫ জন নিহতের খবর পেয়েছেন। হামলায় ৫০ জনের বেশি আহত হয়েছেন। তাঁদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তিনি বলেন, ‘প্রশিক্ষণ শিবিরে বিদ্রোহীদের একটি বৈঠক ছিল হামলার মূল লক্ষ্য। আমরা এখন পর্যন্ত ৩৫ জন নিহতের খবর নিশ্চিত হয়েছি। কিন্তু নিহতের সংখ্যা খুব দ্রুত বাড়ার আশঙ্কা করছি। কারণ হামলায় অনেক বেশি সংখ্যক মানুষ আহত হয়েছেন এবং তাঁদের অবস্থা গুরুতর।’

মন্তব্য পড়ুন 0