ব্যাটারিগুলো তখনো তাঁর পাকস্থলীতে আটকে না যাওয়ায় চিকিৎসকেরা আশা করেছিলেন স্বাভাবিক উপায়ে সেগুলো বের হয়ে যাবে। আইরিশ মেডিকেল জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়, ওই নারী প্রথম সপ্তাহে পাঁচটি ‘এএ’ ব্যাটারি বের করতে সক্ষম হয়েছিলেন। কিন্তু অন্যগুলো আটকে গিয়েছিল।

চিকিত্সকেরা বুঝতে পেরেছিলেন, ওজনের কারণে ব্যাটারিগুলো পিউবিক হাড়ের ওপরে ঝুলছে। তখন তাঁরা অস্ত্রোপচারের সিদ্ধান্ত নেন। অস্ত্রপচারের পর ৪৬টি ব্যাটারি বের করতে সক্ষম হন চিকিৎসকেরা। চারটি ব্যাটারি তাঁর মলাশয়ের ওপরের হাঁড়ে আটকে যায়। পরে চিকিৎসকেরা ওই চারটি ব্যাটারিকে মলদ্বারে নিয়ে আসতে পেরেছিলেন। যাতে স্বাভাবিক প্রক্রিয়ায় সেগুলো বের হয়ে যায়।

মেডিকেল জার্নালের ওই নিবন্ধের লেখকেরা বলেছেন, পেটের মধ্যে সর্বোচ্চ–সংখ্যক ব্যাটারি গ্রহণের রেকর্ড হতে পারে এটি। জার্নালে সতর্ক করে বলা হয়, ব্যাটারি খাওয়া হলো, আত্মহত্যার একটি পদ্ধতি। এতে শরীরে গুরুতর সমস্যা তৈরি হতে পারে। এমন পরিস্থিতিতে জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্রপচার করা উচিত বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন