মঙ্গলবারের ভোটে দ্বিতীয় স্থান ধরে রাখতে সক্ষম হয়েছেন জুনিয়র বাণিজ্যমন্ত্রী পেনি মরড্যান্ট। তবে এবারের ভোটে ব্যবধান কমিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্রাস। এই দুজনের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়েছে। মরড্যান্ট পেয়েছেন ৯২ ভোট আর ট্রাস পেয়েছেন ৮৫টি। সবচেয়ে কম ভোট (৫৯) পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী হওয়ার প্রতিযোগিতা থেকে ছিটকে পড়েছেন কেমি বাডেনোচ।

বুধবার তিন প্রার্থী সুনাক, মরড্যান্ট ও ট্রাসের মধ্যে আরেকটি দফা ভোটাভুটি হবে। সেখানে দুজনকে নির্বাচিত করা হবে। আর তাঁরাই চূড়ান্ত ভোটে অংশ নেবেন। চূড়ান্ত পর্বে সুনাকের যাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি। কনজারভেটিভ পার্টির সদস্যরা দলের নেতা তথা প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দুজন থেকে একজনকে নির্বাচিত করবেন ভোটের মাধ্যমে।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন