ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে, বুধবার ঋষি সুনাককে ভোট দিয়েছেন ১৩৭ এমপি। আর পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্রাস পেয়েছেন ১১৩ জনের সমর্থন। যাঁকে সবচেয়ে অগ্রগামী মনে করা হচ্ছিল, সেই জুনিয়র বাণিজ্যমন্ত্রী পেনি মরড্যান্ট তৃতীয় অবস্থানে থাকায় লড়াই থেকে ছিটকে পড়েছেন। তিনি ভোট পেয়েছেন ১০৫টি।
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য আগে চার দফা ভোট হয়। এর প্রতিবারই সর্বোচ্চ ভোট পান সুনাক। চূড়ান্ত ভোটে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলে সুনাক হবেন একমাত্র ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। তবে অভিবাসী পরিবারের সদস্য হওয়ায় তাঁকে অনেক পরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হচ্ছে এবং সামনে যেতে হবে।

এর আগের দফার ভোটগুলোতে দ্বিতীয় স্থানে ছিলেন পেনি মরড্যান্ট। বরিস জনসনের ঘনিষ্ঠ পররাষ্ট্রমন্ত্রী লিজ ট্রাস সবসময়ই তৃতীয় হয়েছেন। কিন্তু বুধবারের ভোটে মরড্যান্টকে পেছনে ফেলেন তিনি।

নানা কেলেঙ্কারির কারণে চলতি মাসের শুরুতে পদত্যাগের ঘোষণা দেন প্রধানমন্ত্রী বরিস। তাঁর পদে আসতে ১০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। সেখান থেকে চূড়ান্তভাবে টিকে যাওয়া সুনাক ও ট্রাসের একজন নির্বাচিত হবেন টরি পার্টির দুই লাখের মতো সদস্যের ভোটে।

বুধবার ভোটের আগে ট্রাস বলেন, এই ভোটে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন