ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী বলেছে, রুশ সেনারা আবার সংগঠিত হচ্ছেন বলে মনে হচ্ছে। তাঁরা দনবাসের স্লোভিয়ানস্ক শহরে আক্রমণ জোরদার করছেন। ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলের দোনেৎস্কের গুরুত্বপূর্ণ শহর স্লোভিয়ানস্ক।

গতকাল রোববার যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, ইউক্রেনের যেসব এলাকা এত দিন রুশ সেনারা দখলে নিয়েছিলেন, সেখানে তারা প্রতিরক্ষামূলক অবস্থান নিয়েছিল। কিন্তু রুশ সেনাদের ইউক্রেনের দখল করা এলাকা থেকে তাড়াতে নেতাদের প্রতিশ্রুতি ও ইউক্রেনের সেনাদের চাপে তারা হামলা জোরদার করছে।

ইউক্রেন বলছে, গত তিন দিনে রুশ সেনাদের গোলাবর্ষণে দনবাসের ৪০ জন নিহত হয়েছে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা শুরু করার নির্দেশ দেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। গত শুক্রবার রাতে খারকিভ অঞ্চলের চুহুইভ শহরে রকেট হামলায় তিনজন নিহত হওয়ার খবর জানিয়েছেন আঞ্চলিক গভর্নর ওলেহ সাইনেহুবভ। দক্ষিণাঞ্চলের দানিপ্রো নদীর কাছের নিকোপোল শহরে ৫০টির বেশি রুশ গ্রাড রকেট হামলার ঘটনা ঘটেছে এতে দুজন নিহত হয়েছে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু পূর্ব ইউক্রেন ও রাশিয়ার দখলে থাকা অন্যান্য এলাকায় ইউক্রেনের হামলা প্রতিরোধে অভিযান জোরদার করতে সেনাবাহিনীকে নির্দেশ দেন। তাঁর মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়, শোহগু বলেন, কিয়েভের ছোড়া রকেটে বেসামরিক অবকাঠামো ও বাসিন্দাদের ক্ষতি হতে পারে।

এর আগে কিয়েভ দাবি করেছিল, পশ্চিমাদের সরবরাহ করা রকেট দিয়ে রুশ বাহিনীর ৩০টি লজিস্টিক ও অস্ত্রভান্ডারে সফলভাবে হামলা চালাতে সক্ষম হয়েছে তাদের বাহিনী। রুশ সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীরা বলেছে, স্লোভিয়ানস্কের পূর্বে আলচেভস্ক শহরে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি রকেট দিয়ে হামলা করেন ইউক্রেনের সেনারা। এতে দুজন বেসামরিক ব্যক্তি নিহত হন। এ ছাড়া একটি বাস ডিপোর ক্ষতি হয়েছে। ইউক্রেনীয় বাহিনীর এ হামলার জবাবে রুশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী শোইগু হামলা জোরদার করতে বলেন।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন