গণভোটকে রাশিয়ার উদ্যোগ হিসেবে দেখা হচ্ছে। তারা এই গণভোটে সমর্থন দিয়েছে। গণভোটকে প্রহসন বলে অভিহিত করেছে ইউক্রেন ও তার পশ্চিমা মিত্ররা।

পশ্চিমারা বলছে, রাশিয়ার এই পদক্ষেপ আন্তর্জাতিক আইনের চরম লঙ্ঘন। এই পদক্ষেপ যুদ্ধকে আরও তীব্রতর করবে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নির্দেশে ইউক্রেনে হামলা শুরু করে রুশ বাহিনী। সাত মাস ধরে এই যুদ্ধ চলছে।

চলতি মাসের শুরুর দিকে উত্তর-পূর্ব ইউক্রেনের গুরুত্বপূর্ণ যুদ্ধক্ষেত্রে হেরে যায় রুশ বাহিনী। তারপরই রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত হতে ইউক্রেনের রুশ-নিয়ন্ত্রিত চার অঞ্চলের মস্কো-সমর্থিত নেতারা গণভোট ডাকেন। পুতিন এই গণভোটের প্রতি সমর্থন দিয়েছেন।

আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত গণভোট চলার পর দ্রুত ফলাফল ঘোষণা করা হতে পারে। গণভোটের ফল পক্ষে এলে ইউক্রেনের অঞ্চল চারটিকে রাশিয়ার সঙ্গে যুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেবেন পুতিন।

ইউক্রেনে রুশ-নিয়ন্ত্রিত অঞ্চলে গণভোট আয়োজনের নিন্দা জানাচ্ছে পশ্চিমারা। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৭তম অধিবেশনে দেওয়া ভাষণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, ইউক্রেনের কয়েকটি অংশকে নিজেদের সঙ্গে যুক্ত করার চেষ্টা হিসেবে প্রহসনের গণভোট আয়োজন করছে ক্রেমলিন।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন