সতর্ক অবস্থানে এক ইউক্রেনীয় সেনা
ছবি: রয়টার্স

ইউক্রেনের চালানো বড় ধরনের একটি হামলা ব্যর্থ করে দেওয়ার দাবি করেছে রাশিয়া। একই সঙ্গে মস্কো বলছে, এই লড়াইয়ে কয়েক শ ইউক্রেনীয় সেনাকে হত্যা করেছে রুশ বাহিনী।

আজ সোমবার রাশিয়ার পক্ষ থেকে এমন দাবি করা হয়। অবশ্য রাশিয়ার দাবি তাৎক্ষণিকভাবে যাচাই করতে পারেনি বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ভাষ্য, গতকাল রোববার ইউক্রেনের দক্ষিণাঞ্চলীয় দোনেৎস্কের যুদ্ধক্ষেত্রের পাঁচটি পয়েন্ট দিয়ে কিয়েভের চালানো বড় ধরনের হামলা রুশ বাহিনী ব্যর্থ করে দিয়েছে। ইউক্রেন এই হামলায় ছয়টি যান্ত্রিক ও দুটি ট্যাংক ব্যাটালিয়ন যুক্ত করেছিল।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, এই হামলার ঘটনায় ইউক্রেনের অন্তত ২৫০ সেনাকে হত্যা করেছে রুশ বাহিনী। পাশাপাশি তারা ইউক্রেনের ১৬টি ট্যাংক, ৩টি পদাতিক যুদ্ধযান ও ২১টি সাঁজোয়া যুদ্ধযান ধ্বংস করেছে।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে পূর্ণ মাত্রায় ‘সামরিক অভিযান’ শুরু করে রাশিয়া। হামলা চালিয়ে ইউক্রেনের বেশ কিছু অঞ্চল নিজেদের দখলে নেয় রাশিয়া।

দখল করা এলাকাগুলো পুনর্দখলে ইউক্রেন পাল্টা হামলা চালাতে পারে বলে দীর্ঘদিন ধরে ধারণা করে আসছে মস্কো।

তা ছাড়া রাশিয়ার দখলে যাওয়া অঞ্চলগুলো পুনরুদ্ধারে ইউক্রেন অনেক দিন ধরেই পাল্টা হামলা চালানোর পরিকল্পনার কথা বলে আসছে।

গতকালের ঘটনাটি ইউক্রেনের পরিকল্পিত পাল্টা হামলার সূচনা কি না, তা তাৎক্ষণিকভাবে স্পষ্ট নয়।

টেলিগ্রামে পোস্ট করা এক বিবৃতিতে রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, ৪ জুন সকালে শত্রুরা দক্ষিণ দোনেৎস্কের যুদ্ধক্ষেত্রের পাঁচটি সেক্টরে একটি বড় ধরনের হামলা শুরু করে। কিন্তু শত্রুপক্ষ লক্ষ্য অর্জন করতে পারেনি। শত্রুপক্ষ কোনো সাফল্য পায়নি।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রকাশ করা ভিডিওতে দেখা যায়, রুশ বাহিনীর হামলায় ইউক্রেনের বেশ কয়েকটি সাঁজোয়া যান ধ্বংস হয়ে গেছে।

রাশিয়ার দাবির বিষয়ে মন্তব্য জানতে ইউক্রেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় ও সামরিক বাহিনীর কাছে লিখিতভাবে অনুরোধ জানায় রয়টার্স। কিন্তু তারা তাৎক্ষণিকভাবে এই অনুরোধে সাড়া দেয়নি।

ইউক্রেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওলেক্সি রেজনিকভ গতকাল টুইটারে একটি রহস্যময় বার্তা দিয়েছেন। এতে তিনি ব্রিটিশ ব্যান্ড ডেপেচে মোডের ‘এনজয় দ্য সাইলেন্স’ (নীরবতা উপভোগ করো) শীর্ষক গানের অংশ উদ্ধৃত করেন।

ইউক্রেন গত সপ্তাহে একটি চটকদার ভিডিও প্রকাশ করে। ওই ভিডিওতে ইউক্রেনীয় সেনাদের পাল্টা হামলার জন্য প্রস্তুতি নিতে দেখা যায়।