মার্কিন কংগ্রেসের সদস্য ইলহান ২০ এপ্রিল থেকে পাকিস্তান সফর করছেন। চার দিনের এ সফরে তিনি ইতিমধ্যে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ও তাঁর উত্তরসূরি শাহবাজ শরিফের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন।

পাকিস্তানে গত সপ্তাহে নতুন সরকার দায়িত্ব নেয়। তারপর এই প্রথম কোনো মার্কিন আইনপ্রণেতা দেশটি সফর করছেন। এ সফরে ইমরানের সঙ্গে ইলহানের বৈঠক নিয়ে পাকিস্তানে নতুন বিতর্ক শুরু হয়েছে। কারণ, পাকিস্তানের সদ্য বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী ইমরান দাবি করে আসছেন, তাঁকে ক্ষমতাচ্যুত করার পেছনে যুক্তরাষ্ট্রের ষড়যন্ত্র ছিল।

ইলহানের সঙ্গে বৈঠকের পর শাহবাজ শরিফ সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ৩৯ বছর বয়সী মার্কিন আইনপ্রণেতার কাছে কাশ্মীর ইস্যু উত্থাপন করেছেন তিনি।

ইলহানের পাকিস্তাননিয়ন্ত্রিত কাশ্মীর এলাকা সফরের বিষয়ে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্রের কাছে নয়াদিল্লির প্রতিক্রিয়া জানতে চান সাংবাদিকেরা। জবাবে তিনি বলেন, এটা নিন্দনীয়।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেন, ‘এমন একজন রাজনীতিবিদ যদি তাঁর দেশে বসে তাঁর সংকীর্ণ রাজনীতির চর্চা করতে চান, তাহলে সেটা তাঁর বিষয় হতে পারে। কিন্তু এ চর্চার অনুসরণে আমাদের আঞ্চলিক অখণ্ডতা লঙ্ঘন করা হলে তা আমাদের বিষয় হয়ে ওঠে। বিষয়টি নিন্দনীয়।’

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন