বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গতকাল রোববার কলকাতায় এক রেস্তোরাঁয় সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন বাবুল সুপ্রিয়। এর আগের দিন শনিবার বিজেপি থেকে তৃণমূলে যোগ দেন তিনি।
রোববারের সংবাদ সম্মেলনে কবীর সুমনের ওই মন্তব্য নিয়ে বাবুলকে প্রশ্ন করেন সাংবাদিকেরা। জবাবে সদ্য তৃণমূলে যোগ দেওয়া এই নেতা বলেন, তিনি কবীর সুমনের কোনো কথা শুনবেন না, পড়বেন না এবং জবাব দেবেন না।

সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে বাবুল সুপ্রিয় বলেন, মমতা ভারতের ভবিষ্যৎ। তাঁকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চান। তিনি ২০২৪ সালের নির্বাচনে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর মুখ হবেন। মানুষ এখন তাঁকে চাইছে। ২০১৪ সালে মোদি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর মুখ। ওই নির্বাচনে মোদি জয় পেয়ে প্রধানমন্ত্রী হন।

বাবুল সুপ্রিয় ২০১৪ সালে প্রথম বর্ধমানের আসানসোল আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে সাংসদ হন। হন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী। ২০১৯ সালে আবার তিনি একই আসন থেকে সাংসদ হন। তবে এবারের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি তাঁকে টালিগঞ্জ আসনে বিধায়ক পদে প্রার্থী করে। সেই নির্বাচনে বাবুল সুপ্রিয় হেরে যান। এরপর তিনি তাঁর আগের সাংসদ পদ নিয়ে রাজনীতিতে থেকে যান।

গত ৮ জুলাই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা পুনর্গঠনের সময় বাদ পড়ে যান বাবুল সুপ্রিয়। বাদ পড়েন এই রাজ্যের অপর প্রতিমন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরীও। এর পরিবর্তে বিজেপি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় নতুন চারজন প্রতিমন্ত্রীকে অন্তর্ভুক্ত করে। আর এটাই মনেপ্রাণে মেনে নিতে পারেননি বাবুল সুপ্রিয়। তাই দল থেকে তাঁর এই পদত্যাগের সিদ্ধান্ত বলে মনে করছেন এখানকার রাজনীতিবিদেরা।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন