বিজ্ঞাপন

এদিকে বার্তা সংস্থা এএনআইয়ের ভিডিওতে দেখা যায়, ওডিশার প্যারাদ্বীপে ইতিমধ্যে ইয়াসের প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। ঝোড়ো বাতাস এবং ব্যাপক বৃষ্টিপাত হচ্ছে। ভারতের আবহাওয়া বিভাগের মহাপরিচালক মৃত্যুঞ্জয় মহাপাত্র বলেন, ইয়াসের প্রভাব প্রথম পড়ল ওডিশায়। যেকোনো সময় আঘাত হানতে পারে ইয়াস।

আল-জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় ইয়াসে ভারতে এ পর্যন্ত দুজন প্রাণ হারিয়েছে।

ওডিশায় আঘাত হানার সময় সমুদ্রে ঢেউয়ের উচ্চতা থাকবে দুই থেকে চার মিটার। আর এই রাজ্যের জগৎসিংহপুর, কেন্দ্রপাড়া, ভাদরাক এলাকায় বাতাসের গতিবেগ থাকবে ১৫৫ থেকে ১৬৫ কিলোমিটার। দমকা বাতাসের গতিবেগ থাকবে ১৮৫ কিলোমিটার।

এদিকে ওডিশার বিভিন্ন অঞ্চলে গতকাল মঙ্গলবার থেকে বৃষ্টি ও ঝোড়ো বাতাস হচ্ছে। গতকাল সেখানে বাতাসের গতিবেগ ছিল ১০০ থেকে ১১০ কিলোমিটার। ওডিশা সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, উপকূলের প্রায় দুই লাখ মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী নবীন পট্টনায়েক বলেন, প্রত্যেক মানুষের জীবন গুরুত্বপূর্ণ। মানুষের জীবন বাঁচাতে যা করা দরকার, তা–ই করা হবে। ওডিশায় এনডিআরএফের ২৮টি টিম মোতায়েন করা হয়েছে। এ ছাড়া অন্ধ্র প্রদেশ, তামিলনাড়ু, আন্দামান ও নিকোবরেও এনডিআরএফের টিম মোতায়েন করা হয়েছে।

ইয়াসের প্রভাব মোকাবিলায় গৃহীত পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ওডিশা, পশ্চিমবঙ্গ ও অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করেছেন। এ ছাড়া আন্দামান ও নিকোবরের প্রশাসকের সঙ্গেও বৈঠক করেছেন অমিত শাহ।

টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে, আজ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের গতিবেগ হতে পারে ১৫৫ থেকে ১৬৫ কিলোমিটার। রাত সাড়ে ১১টার দিকে গতিবেগ হতে পারে ১০০ থেকে ১১০ কিলোমিটার। আগামীকাল বৃহস্পতিবার এটি দুর্বল হয়ে নিম্নচাপে পরিণত হতে পারে।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন