default-image

পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচন শেষ হওয়ার পরদিন করোনার সংক্রমণের লাগাম টানতে বিভিন্ন ধরনের কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করেছে মমতা বন্দোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেস সরকার। ভারতের অন্য রাজ্যগুলোর মতো পশ্চিমবঙ্গেও করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। বলা হচ্ছে, নির্বাচনী সভা-সমাবেশ থেকেই এ সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আজ শুক্রবার কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করে একটি নির্দেশনা জারি করেছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার। শুক্রবার সন্ধ্যা থেকেই রাজ্যজুড়ে এ নির্দেশনা কার্যকর হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত সিনেমা হল, শপিং মল, বিউটি পারলার, হোটেল-রেস্টুরেন্ট, ক্রীড়াঙ্গন, ব্যায়ামাগার, স্পা সেন্টার, সুইমিংপুল বন্ধ রাখতে হবে।

পশ্চিমবঙ্গের মানুষ প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে ১০টা ও বেলা ৩টা থেকে বিকেল ৫টা—এ পাঁচ ঘণ্টা সময় পাবেন বাজার করার জন্য। দিনের বাকি সময় দোকানপাট বন্ধ থাকবে। চালু রাখা যাবে নিত্যপণ্যের হোম ডেলিভারি সেবা। তবে ওষুধ, চিকিৎসাসামগ্রী ও মুদির দোকান বিধিনিষেধের আওতার বাইরে থাকবে।

বিজ্ঞাপন

সব ধরনের সামাজিক, সাংস্কৃতিক, শিক্ষা ও বিনোদনমূলক অনুষ্ঠান আয়োজন পুরোপুরি বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। এসব নির্দেশনা না মানলে প্রশাসন কড়া ব্যবস্থা নেবে বলেও জানানো হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের আট দফার ভোট গ্রহণ শেষ হয়েছে। রোববার ঘোষণা করা হবে ফলাফল। ভোটের সময় থেকেই রাজ্যে করোনা সংক্রমণ বাড়তে শুরু করে। ভোট গণনা ও ফল প্রকাশের পর মিছিল ও বিজয়োৎসবের ক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশিকা মেনে চলতে বলেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।

এদিকে এনডিটিভির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, পশ্চিমবঙ্গে সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় ১৭ হাজার ৪০৩ জনের করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে। মারা গেছেন ৮৯ জন। এর আগে রাজ্যে এক দিনে এতজনের করোনা শনাক্ত হয়নি। ১০ দিন আগেও পশ্চিমবঙ্গে সংক্রমণের হার ছিল ৬ দশমিক ৭৯ শতাংশ, এখন তা ৭ দশমিক ৮১ শতাংশ।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন