বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

খুররমের বিরুদ্ধে বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইন (ইউএপিএ) এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির বিভিন্ন ধারায় মামলা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

বিবিসির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, কঠোর সন্ত্রাসবিরোধী আইনের অধীন গ্রেপ্তার কাশ্মীরি মানবাধিকারকর্মীর জামিন পাওয়া প্রায় অসম্ভব।

খুররম মোদি সরকারের কট্টর সমালোচক। তিনি নাগরিক জোট জম্মু ও কাশ্মীর কোয়ালিশন অব সিভিল সোসাইটির অন্যতম সদস্য। এ জোট উপত্যকায় মানবাধিকারের লঙ্ঘন ও ভারতীয় নিরাপত্তা বাহিনীর বলপ্রয়োগের ঘটনাগুলো নিয়ে কয়েকটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল। এ ছাড়া তিনি মানবাধিকার সংস্থা এশিয়ান ফেডারেশন অ্যাগেইনস্ট ইনভলান্টারি ডিসঅ্যাপিয়ারেন্স-এর (আফাদ) চেয়ারপারসন। সংস্থাটি কাশ্মীর ও এশিয়ায় গুমের ঘটনা নিয়ে কাজ করে। খুররম পারভেজের গ্রেপ্তারের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক বিশেষ দূত ম্যারি লোলা।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন