বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কলকাতার বেহালা, বাগবাজার, শ্যামবাজার, উল্টোডাঙ্গা, যাদবপুর, লেক গার্ডেনস, কাঁকুরগাছি, পার্ক সার্কাস, বেলগাছিয়া, বাঘা যতীন, ঢাকুরিয়া, লেকটাউন, বালিগঞ্জ, আমহার্স্ট স্ট্রিট, আনোয়ার শাহ রোড, হাজরা, রানিকুঠির নেতাজি সুভাষচন্দ্র সড়ক, সুকিয়া স্ট্রিট, খিদিরপুর, কলকাতা পোর্ট এলাকা, কলেজ স্ট্রিট, গলফগ্রিন, হালতু, উদয়শঙ্কর সরণি, নাকতলা, কলকাতা বিমানবন্দর, মধ্যমগ্রাম, বারাসাত, হাওড়ার ইছাপুর, ডুমুরজলায় প্রচুর পানি জমে রাস্তা যেন নদীর রূপ নিয়েছে। এ কারণে অনেক রাস্তায় নৌকা নেমেছে। এসব নৌকায় পার হচ্ছে লোকজন।

default-image

ঝোড়ো বাতাসে কিছু এলাকায় বৈদ্যুতিক তার ছিঁড়ে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ হয়ে গেছে। টালিগঞ্জের রাস্তায় গাছপালাও ভেঙে পড়েছে। কলকাতার নিচু এলাকায় বাড়িগুলোর নিচতলা ডুবে যাওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছে সেখানকার বাসিন্দারা। কলকাতার পিজি হাসপাতালসহ অন্যান্য হাসপাতাল ও আলিপুর আদালত চত্বরও তলিয়ে গেছে বৃষ্টির পানিতে।

default-image

এদিকে টানা বৃষ্টির প্রভাব পড়েছে কলকাতার পার্শ্ববর্তী উত্তর চব্বিশ পরগনা, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা, হাওড়া, হুগলি এবং নদীয়া জেলার বিস্তীর্ণ এলাকায়। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার সাগর থানা এলাকায় সোমবার একটি মিনি টর্নেডো আঘাত হেনেছে। ১০ থেকে ১২ সেকেন্ড স্থায়ী টর্নেডোর আঘাতে ঐতিহাসিক কপিলমুনি আশ্রম এলাকায় ভেঙে গেছে বেশ কিছু বাড়িঘর ও দোকানপাট।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন