default-image

করোনাভাইরাসের টিকার ট্রায়ালে অংশ নেওয়া এক ভারতীয় মন্ত্রী এবার করোনায় আক্রান্ত হলেন। আর করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর তিনি নিজের টুইটারে শেয়ার করেছেন। তিনি হলেন ভারতের হরিয়ানা রাজ্যর স্বাস্থ্যমন্ত্রী অনিল ভিজ। আজ শনিবার নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে তিনি তাঁর সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের অবিলম্বে করোনা পরীক্ষা করার জন্য আহ্বানও জানিয়েছেন।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়েছে, গত ২০ নভেম্বর অনিল ভিজ তেলেঙ্গানার হায়দারাবাদভিত্তিক ভারত বায়োটেকের উদ্যোগে তৈরি কোভিড প্রতিষেধক কোভ্যাক্সিন টিকার ট্রায়ালে অংশ নিয়েছিলেন। ট্রায়ালে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে টিকার ডোজ তিনি নিয়েছিলেন। সেই স্বেচ্ছাসেবক মন্ত্রী অনিল ভিজ এবার করোনায় আক্রান্ত হলেন।  

বিজ্ঞাপন
default-image

শনিবার টুইটারে অনিল ভিজ বলেছেন, ‘করোনা পরীক্ষায় আমার ফল পজিটিভ এসেছে। আমি আম্বালা ক্যান্টনমেন্টের সিভিল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি। যাঁরা আমার সংস্পর্শে এসেছেন, তাঁরা সবাই করোনা পরীক্ষা করুন।’

হায়দরাবাদের ওই ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ভারত বায়োটেক তাদের টিকা কোভ্যাক্সিন যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য ট্রায়াল চালিয়েছে। সুরক্ষাই হলো টিকার প্রাথমিক মানদণ্ড। তাদের দাবি, এগুলো সব নিরাপদ।

কোম্পানিটি জানিয়েছে, কোভ্যাক্সিন টিকার ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালে দুটি ডোজ নিতে হয় স্বেচ্ছাসেবকদের। দ্বিতীয় ডোজ শরীরের নেওয়ার ১৪ দিন পর এই ভ্যাকসিন কার্যকার কি না, তা বোঝা যায়। এই টিকার তিনটি ট্রায়াল হবে। এর তৃতীয় পর্যায়ে ২৫ শহরে ২৬ হাজার টিকার ডোজ দেওয়া হবে। ভারত বায়োটেক বিশ্বের ৮০টি দেশে ৪ বিলিয়ন ডোজ টিকা সরবরাহ করেছে।

টিকা নেওয়ার উদ্দেশ্য হলো, কিছুদিন পর শরীরের জীবাণুর বিরুদ্ধে অ্যান্টিবডির গঠনপ্রক্রিয়া শুরু করা। এই প্রক্রিয়া শুধু টিকার একটি ডোজ নেওয়া ব্যক্তির ক্ষেত্রে নয়, ট্রায়ালে অংশ নেওয়া সব স্বেচ্ছাসেবীর জন্যই প্রযোজ্য হয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য করুন