বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গত অক্টোবরের মাঝামাঝি থেকে এক সপ্তাহ ধরে চলা সহিংসতায় বহু মানুষ তাঁদের ঘরবাড়ি হারিয়েছেন, বেশ কিছু মসজিদে হামলা চালানো হয়েছে।

ইউএপিএতে যাঁদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে, তাঁদের একজন সাংবাদিক শ্যাম মীরা সিং। তিনি প্রথম আলোকে বলেন, ‘মাত্র তিনটি শব্দ, “ত্রিপুরায় আগুন জ্বলছে” লেখার জন্য বিজেপি–শাসিত ত্রিপুরা সরকার আমার বিরুদ্ধে ইউএপিএতে মামলা করেছে।

সুবিচারের জন্য সব সময় কথা বলব। দেশের প্রধানমন্ত্রী কাপুরুষ হলেও সাংবাদিকেরা নন।’ শ্যাম সিং ছড়াও বিভিন্ন পেশার বেশ কিছু ব্যক্তি, সাংবাদিক ও শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধেও বিশেষ সন্ত্রাস দমন আইনে মামলা করা হয়েছে।

মানবাধিকার সংগঠনের পক্ষে ত্রিপুরার সহিংসতা নিয়ে তদন্ত করে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছেন, এমন দুজন আইনজীবীর বিরুদ্ধেও ইউএপিএতে মামলা দেওয়া হয়েছে। এঁরা হলেন আনসার ইন্ডোরি ও মুকেশ কুমার নামে দিল্লির দুই আইনজীবী।

মানবাধিকার সংগঠনগুলো বলছে, ত্রিপুরায় বেছে বেছে তাঁদেরই গ্রেপ্তার করা হচ্ছে, যাঁরা এই সহিংসতার বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন এবং বিজেপি শাসনাধীন ত্রিপুরা সরকারকে দোষারোপ করেছেন। অথচ যাঁরা সক্রিয়ভাবে সহিংসতায় অংশ নিয়েছে, তাদের ধরা হচ্ছে না বলে মানবাধিকার সংগঠন, সাংবাদিক ও আইনজীবীদের একাংশ জানিয়েছেন।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন