default-image

ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেছেন, এবার আর বিধানসভা নির্বাচনের দিন তৃণমূলের গুন্ডাদের রাস্তায় দেখা যাবে না। নির্বাচন হবে সুষ্ঠু। এবার এই বাংলায় সরকার গড়বে বিজেপি। বিজেপি-ই এই বাংলাকে সোনার বাংলা গড়ে তুলবে। উৎখাত করা হবে তৃণমূল সরকারকে।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার সুন্দরবন অঞ্চলের নামখানায় এসে এসব কথা বলেন বিজেপি নেতা অমিত শাহ। তিনি আজ সকালে কলকাতার বালিগঞ্জের ভারত সেবাশ্রম সংঘে গিয়ে স্বামী প্রভানানন্দ মহারাজের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন এবং তাঁর ছবির সামনে আরতি করেন। এরপর তিনি চলে যান গঙ্গাসাগরের কপিল মুনির আশ্রমে। সেখানে গিয়ে তিনি গঙ্গাসাগর পরিদর্শন করে কপিল মুনির আশ্রমে পূজা দেন এবং আরতি করেন। এরপর তিনি নামখানায় এসে শেষ পরিবর্তন যাত্রার সূচনা করে ভাষণ দেন। সেখানেই উঠে আসে অমিত শাহর এসব কথা।

বিজ্ঞাপন

আজ অমিত শাহ বলেন, এই বাংলায় এখন রাজনৈতিক হিংসা বাড়ছে। এই হিংসা বাড়াচ্ছে তৃণমূল। এই তৃণমূলের জমানায় বিজেপির ১৩০ জন নেতা–কর্মী মারা গেছেন। বাংলার আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি হয়েছে। বিজেপি ক্ষমতায় এলে এই রাজ্যে শান্তি ফিরবে। বিজেপি এই বাংলার মানুষের জন্য শান্তি ফিরিয়ে আনবে। তৃণমূল সরকারের হাত থেকে এই বাংলাকে মুক্ত করবে।

অমিত শাহ বলেন, দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার গঙ্গাসাগরকে আন্তর্জাতিক পর্যটনকেন্দ্র হিসেবে গড়া হবে। গঙ্গাসাগর মেলাকে আন্তর্জাতিক মেলায় রূপ দেওয়া হবে।
অমিত শাহ আরও বলেছেন, বিজেপি বাংলায় ক্ষমতায় এলে এ রাজ্যে রুখে দেওয়া হবে অনুপ্রবেশ। একটা পাখিকেও ঢুকতে দেওয়া হবে না।

অমিত শাহ বলেন, বাংলায় বিজেপি এবার এই রাজ্যে ডাবল ইঞ্জিন সরকার। একদিকে কেন্দ্রে বিজেপির সরকার, অন্যদিকে রাজ্যেও বিজেপির সরকার। ফলে এই ডাবল ইঞ্জিনের সরকার সোনার বাংলা গড়তে গতি আনবে বাংলায়। গড়া হবে মোদির নেতৃত্বে এই বাংলাকে সোনার বাংলা।

আসন্ন রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের প্রচারাভিযানকে আরও জোরদার করতে আজ কলকাতায় আসেন অমিত শাহ। বিকেলে তিনি কাকদ্বীপে যোগ দেন রোড শোতে।
‘পরিবর্তন যাত্রা’ নামে কথিত বিজেপির নির্বাচনী প্রচারাভিযান চতুর্থ পর্যায়ের উদ্বোধন করেছিলেন অমিত শাহ এর আগে গত ১১ ফেব্রুয়ারি। এর সূচনা হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার শহর থেকে। অবশ্য ৬ ফেব্রুয়ারি প্রথম পরিবর্তন যাত্রার সূচনা করেছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা রাজ্যের নবদ্বীপ থেকে। আর ৯ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় ও তৃতীয় পরিবর্তন যাত্রারও সূচনা করেছিলেন জেপি নাড্ডা বীরভূমের তারাপীঠ এবং ঝাড়গ্রামের লালগড় থেকে। আজ সূচনা করলেন পঞ্চম বা শেষ পরিবর্তন যাত্রা দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার নামখানা থেকে।

আজ অমিত শাহ বলেন, এই দক্ষিণ চব্বিশ পরগনায় চার লাখ মৎস্যজীবীর উন্নয়নের জন্য প্রকল্প গ্রহণ করা হবে। দেওয়া হবে মাসে ৬ হাজার রুপি করে। এখানে খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ কেন্দ্র গড়া হবে। বিজেপি ক্ষমতায় এলে সপ্তম বেতন কমিশন গড়া হবে। একই সঙ্গে তিনি এ কথাও বলেন, আম্পান আর করোনাকালে ত্রাণ ও রেশনের সামগ্রী কেন্দ্রীয় সরকার পাঠালেও তা আত্মসাৎ হয়েছে এই বাংলায়।

বিজ্ঞাপন
ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন