মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আজ রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় তুলেছে তৃণমূল। মানুষ খালি গ্যাসের সিলিন্ডার মাথায় নিয়ে মিছিল করেছেন ক্যানিংয়ে। সাইকেলে সিলিন্ডার নিয়ে প্রতিবাদী মিছিল করেছেন কলকাতার সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউতে। গঙ্গাসাগরে বাইক জ্বালিয়ে প্রতিবাদ হয়েছে। চন্দ্রকোনায় পেট্রলপাম্পের সামনে গণস্বাক্ষর অভিযান চালিয়েছেন তৃণমূলের কর্মীরা। চেতলায় প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দিয়ে পেট্রল-ডিজেলের দাম কমানোর দাবি তুলেছেন রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।

ঠেলাগাড়িতে মোটরসাইকেল নিয়ে মিছিল হয়েছে আমডাঙ্গায়; নদীয়ায় গরুর গাড়িতে চড়ে প্রতিবাদ করা হয়েছে। গড়িয়াটে প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে। বিজয়গড়ে গরুর পিঠে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কুশপুতুল বসিয়ে প্রতিবাদ হয়েছে। দক্ষিণ কলকাতার পল্লীশ্রীতে প্রতিবাদ কর্মসূচিতে গরু দিয়ে গাড়ি টানানো হয়েছে।

এ ছাড়া নদীয়া, মন্দিরবাজার, চুঁচুরা, মালদহ, রামপুরহাট, বিটি রোড, কাশীপুর, মেমারি, সল্টলেক, গিরিশ পার্কসহ রাজ্যের সর্বত্র আজ পেট্রল-ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধিতে ব্যাপক প্রতিবাদ, পথসভা হয়েছে। বহু সভায় বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতাদের কুশপুতুল দাহ করা হয়েছে।

এই মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে পশ্চিমবঙ্গ বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, আন্তর্জাতিক বাজারে পেট্রল-ডিজেলের মূল্য কমে এলে ভারতেও কমবে। তিনি পেট্রল-ডিজেলের ওপর রাজ্য সরকারের আরোপিত ট্যাক্স কমিয়ে দেওয়ার দাবি জানান।

এদিকে দাম বাড়তে বাড়তে আজ কলকাতায় প্রতি লিটার পেট্রল বিক্রি হয়েছে ১০১ দশমিক শূন্য ১ রুপিতে। গতকাল থেকে বেড়েছে ৩৯ পয়সা। আর ডিজেলের দাম বেড়ে লিটার হয়েছে ৯২ দশমিক ৯৭ রুপি। গতকাল থেকে বেড়েছে ৩২ পয়সা।

একইভাবে মুম্বাই শহরে পেট্রলের দাম হয়েছে ১০৬ দশমিক ৯৩ রুপি, আর ডিজেল ৯৭ দশমিক ৪৬ রুপি। চেন্নাইতে এই দাম বেড়ে হয়েছে পেট্রল ১০১ দশমিক ৬৭ রুপি এবং ডিজেল ৯৪ দশমিক ৩৯ রুপি। আর রাজধানী দিল্লিতে এই দাম বেড়ে হয়েছে পেট্রল ১০০ দশমিক ৯১ রুপি এবং ডিজেল ৮৯ দশমিক ৮৮ রুপি।