বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বাড়ি বাড়ি গিয়ে শাড়ি-ব্লাউজ বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করেন শ্রীনিবাস। এ ছাড়া বাড়িতে দরজির কাজ করেন তিনি। গতকাল রোববার শ্রীনিবাস একটি ব্লাউজ সেলাই করে তাঁর স্ত্রীকে দিয়েছিলেন। কিন্তু বিজয়ার সেই ব্লাউজ পছন্দ হয়নি। এরপর তাঁদের মধ্যে এ নিয়ে ঝগড়া হয়। বিজয়া স্বামীকে ব্লাউজটি ঠিক করে দিতে বলেন, কিন্তু শ্রীনিবাস তা করতে রাজি হননি। এতে রেগে যান বিজয়া।

বিজয়ার সন্তানেরা স্কুল থেকে বাসায় ফিরে দেখে শোয়ার ঘরের দরজা বন্ধ। অনেক ধাক্কাধাক্কির পরও দরজা খোলা হয়নি। এরপর খবর পেয়ে শ্রীনিবাস বাড়ি ফেরেন। অনেক ধাক্কাধাক্কির পরও না খোলায় তিনি দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে দেখেন, বিজয়া মারা গেছেন।

আমবেরপেত পুলিশের ইন্সপেক্টর পি সুধারকর জানান, শ্রীনিবাস তাঁদের জানিয়েছেন, এর আগেও বিজয়া ঝগড়াঝাঁটির পর ঘরের দরজা একাধিকবার বন্ধ রেখেছেন। কিন্তু এমন ঘটনা ঘটবে, তিনি ধারণাও করতে পারেননি। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। বিজয়া আত্মহত্যা করেছেন—এমন কোনো চিঠি লিখে যাননি। এ নিয়ে তদন্ত করছে পুলিশ।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন